এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > করোনা আবহে ঠিক কেমন হল বিহারের প্রথম দফার নির্বাচন? কতখানি অশান্তি? কি কি অভিযোগ উঠল?

করোনা আবহে ঠিক কেমন হল বিহারের প্রথম দফার নির্বাচন? কতখানি অশান্তি? কি কি অভিযোগ উঠল?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- গতকাল বিহারে প্রথম দফা ভোট হয়ে গেল। তথ্য অনুযায়ী, ভোট নির্বিঘ্নেই সম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিন ভোট শুরু হয় সকাল ৭টায়। তবে ভোট শেষের সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে সন্ধে ৬টা করা হয়। যদিও একমাত্র মাওবাদী অধ্যুষিত এলাকাতেই ভোটগ্রহণের সময় বাড়ানো হয়নি বলে জানা গেছে।

এদিন সকালেই ঔরঙ্গাবাদের ঢিবরা এলাকায় সিআরপিএফ দু’টি আইইডি উদ্ধার করে বলে জানা যায়। তবে এগুলিকে নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়। অন্যদিকে, গয়ায় নিজের কেন্দ্রে সাইকেল চালিয়ে ভোট দিতে আসেন মন্ত্রী প্রেম কুমার। কিন্তু তিনি যে মাস্ক পরে ভোট দিতে আসেন, সেটিতে দলের প্রতীক চিহ্ন থাকায় বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

অন্যদিকে, এদিন কয়েকটি বুথে ভোট বয়কট হয়। সেইসঙ্গে গয়ারই শাহরি বিধানসভার একটি বুথে মহিলারা বিক্ষোভ দেখান বলে জানা গেছে। বিজেপি তাদের ভোট দিতে ভয় দেখাচ্ছে, এই অভিযোগে তাঁরা বিক্ষোভ দেখান বলে জানা গেছে। অন্যদিকে এদিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জিতনরাম মাঝি গয়ায় নিজের কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন।

অন্যদিকে, ভোট শুরুর আগে গতকাল রাহুল গান্ধী ট্যুইট করে প্রথম দফা ভোটের জন্য সকলকে শুভেচ্ছা জানান। এই প্রসঙ্গে তিনি লেখেন, এবার ন্যায়, রোজগার ও কিষাণ-মজদুরদের জন্য আপনার ভোট শুধুমাত্র মহাজোটেই। তবে তারপর ‘আব বদলেগা বিহার’ এই কথা লিখতেই বিতর্ক তৈরি হয়।

জানা গেছে এইসব শব্দ নিয়েই বিজেপি বিধি চালু থাকাকালীন মহাজোটকে ভোট দেওয়ার জন্য রাহুল প্রচার করেছেন এই বলে বিজেপি ভোটের বিধি ভাঙার প্রচেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে এদিন সন্ধে ৬টা পর্যন্ত ৫৩.৪৬ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানা গেছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিন যে ৭১টি আসনে ভোট পড়েছে, তার মধ্যে আরজেডির দখলে রয়েছে ২৭টি আসন, জেডিইউ ও বিজেপির যথাক্রমে ১৮ ও ১৩ বিধায়ক আসন রয়েছে। অন্যদিকে কংগ্রেসের দখলে ৯টি আসন রয়েছে বলে জানা গেছে। আর অন্যান্য দলের চার বিধায়ক আসন রয়েছে। এদিন বিহারের ১৬টি জেলার ৭১টি আসনে ভোট নেওয়া হয়।

সেইসঙ্গে করোনা আবহে যাতে সুষ্ঠুভাবে ভোট নেওয়া সম্ভব হয়, তার জন্য নির্বাচন কমিশন সবরকম ব্যবস্থা করেছিল বলেই জানা গেছে। প্রথমে একটি বুথে সর্বাধিক ১ হাজার ৬০০ জন ভোটার ভোট দিতে পারবেন বলে ঠিক করা হলেও, পরে সেই সংখ্যা কমিয়ে হাজার করা হয়। সেইসঙ্গে সমস্ত বুথে ইভিএম স্যানিটাইজ করা থেকে শুরু করে, থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা, মাস্ক পরা ছিল বাধ্যতামূলক। পোলিং অফিসাররাও উপযুক্ত পোশাক পরেছিলেন বলে জানা যায়।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গের ভোট দিন দিন এগিয়ে আসছে। আর বিহারের এমন শান্তিপূর্ণ ভোট দেখে বাংলায় এমন ভোটের প্রত্যাশা করেছেন অনেকে। কারণ কূটনীতিকদের মতে, বাংলায় ভোট মানেই বুথ দখল, বিরোধীদলের প্রচারকারীকে বসতে না দেওয়া।

এছাড়াও ভোটের দিন গোলাগুলি, বোমাবাজির মত অশান্তি সবকিছুই খবরের শিরোনামে বারবার জায়গা করে নেয়। তবে এবারের বিহারের প্রথম দফা ভোট নিয়ে তাই বঙ্গের মানুষের আক্ষেপ রয়েই যাচ্ছে। কারণ এত কিছু দেখে এবারের ভোটে বিহারের ছায়া বাংলায় পড়বে কিনা সেই আক্ষেপই করেছেন বঙ্গের আমজনতা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!