এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ৪১৪ কোটি দিয়েছে দাবি কেন্দ্রের! উড়িয়ে দিল রাজ্য! সত্য-মিথ্যা নিয়ে জারি চূড়ান্ত জল্পনা

৪১৪ কোটি দিয়েছে দাবি কেন্দ্রের! উড়িয়ে দিল রাজ্য! সত্য-মিথ্যা নিয়ে জারি চূড়ান্ত জল্পনা



2011 সালে রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পর থেকেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বিমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ করে এসেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ইউপিএ হোক বা এনডিএ, কেন্দ্রের প্রত্যেক শাসকবর্গের বিরুদ্ধেই রাজ্যকে সাহায্য না করার অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি। তবে 2014 সালে কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আসার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই অভিযোগ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

এমনি সময় অর্থ দিয়ে সাহায্য করা তো দূরঅস্ত, এবার বুলবুল বিধ্বস্তদের সাহায্য করার আশ্বাস দিলেও কেন্দ্র বিন্দুমাত্র সাহায্য করেনি বলে সরব হতে দেখা গেল বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। পাল্টা বিবৃতি দিল কেন্দ্র। যা নিয়ে ফের প্রকাশ্যে চলে এল কেন্দ্র বনাম রাজ্যের চরম সংঘাত। বস্তুত, কিছুদিন আগেই রাজ্যের উপর দিয়ে বয়ে গেছে ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল।

এই ঝড়ের ফলে রাজ্যের উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে কিছুটা হলেও ক্ষতি হয়েছে। তবে এই ঝড়ের সময়ে টুইট করে রাজ্যের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এমনকি দুর্যোগের পরবর্তীকালে রাজ্যে এসে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ দেখে গিয়েছিল কেন্দ্রের প্রতিনিধিদল। যা দেখে রাজ্য সরকার আশা করেছিল, এবার হয়ত কেন্দ্রের তরফে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য কোনো সাহায্য মিলবে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু কেন্দ্র কোনো সাহায্য করেনি বলে এবার বিধানসভায় দাঁড়িয়ে সরব হলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিধানসভার অধিবেশনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে সাংঘাতিক ক্ষতি হয়েছে। আমরা কেন্দ্রকে সবটা জানিয়েছি। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল এসেছিল। হেলিকপ্টারে করে তাদের পরিদর্শন করানো হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী ঘটনার পরদিন টুইট করেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনো রকম সাহায্য পাওয়া যায়নি। লেট হোপ ফর দ্যা বেস্ট।”

এদিকে মুখ্যমন্ত্রী বিধানসভায় দাঁড়িয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হলেও, পাল্টা এই ব্যাপারে তাদের যুক্তি খাড়া করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এদিন এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে সংসদে দাঁড়িয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই একটি প্রশ্নের লিখিত জবাবে বলেন, “2019-20 সালে পশ্চিমবঙ্গকে 414 কোটি টাকা দেওয়া হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের আপৎকালীন মোকাবিলায় যে তহবিল রয়েছে, সেই তহবিলে কেন্দ্রের অংশীদারিত্ব রয়েছে। তাতেই সেই টাকা দেওয়া হয়েছে। বাংলা এবং উড়িষ্যার আপৎকালীন মোকাবিলার তহবিলে কেন্দ্রের তরফে টাকা দেওয়া হয়।”

তবে কেন্দ্র এই দাবি করলেও তা সম্পূর্ণরূপে উড়িয়ে দিয়েছে রাজ্যের শাসক দল। এদিন এই প্রসঙ্গে একটি সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য বলেন, “কেন্দ্র কোনো ফান্ড দেয়নি।” একইভাবে কেন্দ্রের করা দাবিকে খারিজ করে দিয়েছেন রাজ্যসভার তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কেন্দ্র বনাম রাজ্যের বিবাদ নতুন কিছু নয়। কিন্তু যেভাবে বুলবুল অধ্যুষিত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্য করা নিয়ে কেন্দ্র বনাম রাজ্যের সংঘাত চরমে উঠল, তাতে গোটা পরিস্থিতি এখন কোনদিকে মোড় নেয়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আমাদের নিউস কেমন লাগছে, বা নিউস সম্পর্কে আপনার গুরুত্বপূর্ণ মতামত আমাদের ফেইসবুক পেজে লিখুন

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!