এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুকুল-কাঁটায় আশঙ্কা বড় ভাঙ্গনের, পঞ্চায়েতকে সামনে রেখে বড় সিদ্ধান্ত শাসকদলে

মুকুল-কাঁটায় আশঙ্কা বড় ভাঙ্গনের, পঞ্চায়েতকে সামনে রেখে বড় সিদ্ধান্ত শাসকদলে



রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের বিশ্লেষণ, শাসকদলের টিকিটে কোনো নির্বাচনে কেউ পরাজিত হলে তিনি ছিটকে পড়েন শীর্ষনেতৃত্ত্বের সুনজরের বৃত্তের বাইরে। এর ব্যতিক্রম যে নেই তা নয়, কিন্তু ব্যতিক্রম তো ব্যতিক্রমই। আর শাসকদলের এহেন রীতি ও নীতিকে কার্যত কাজে লাগাতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন সদ্য দলত্যাগী নেতা মুকুল রায়। বিজেপিতে যোগ দিয়েই তিনি ‘টার্গেট’ করেছেন আদি ও ব্রাত্য হয়ে যাওয়া তৃণমূলী নেতাদের। যার সবথেকে বড় উদাহরণ, সম্প্রতি ডেবরার প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক রাধাকান্ত মাইতি ও ‘বসে যাওয়া’ নেতা শিবু পানিগ্রাহী মুকুল রায়ের হাত ধরে যোগ দিয়েছেন বিজেপিতে। সামনেই পঞ্চায়েত ভোট, আর নির্বাচনের দিন যত এগিয়ে আসবে, ততই মুকুল রায়ের ‘অনুপ্রেরণায়’ শাসকদল ছেড়ে এইসব আদি ও ব্রাত্য হয়ে যাওয়া নেতা-কর্মীরা বিজেপিতে যোগ দেবেন বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের।
মুখে রাজ্য-রাজনীতিতে মুকুল রায়ের কোনো প্রভাব থাকার কথা স্বীকার না করলেও, এই দলভাঙ্গানোর ব্যাপারে যে যথেষ্ট চিন্তিত শাসকদল, তা সম্প্রতি নেওয়া এক সিদ্ধান্তেই প্রমাণিত। সূত্র মারফত জানা যাচ্ছে, জেলা বা ব্লকস্তরে ব্রাত্য নেতাদের ১৫ ডিসেম্বর কোর কমিটির বৈঠকে ডাকতে চলেছে শাসকদল, যা ইদানিংকালে দেখতে পাওয়া দুস্কর। সবথেকে বড় কথা জানা যাচ্ছে, এই বৈঠকে খুব গুরুত্ত্ব পেতে চলেছেন ‘আদি তৃণমূলীরা’, গত লোকসভা বা বিধানসভা ভোটে পরাজিত দলীয় প্রার্থীরাই এই বৈঠকে পেতে চলেছেন অসীম গুরুত্ত্ব। সূত্র মারফত আরও জানা যাচ্ছে, নির্বাচনে হারের পরে তাঁদের অনেকের সঙ্গেই দলের দূরত্ব তৈরি হয়েছিল, কিন্তু সেই দূরত্ব যাতে আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে না পারে, তাই এই পদক্ষেপ। শাসকদল সূত্রে জানা যাচ্ছে, পরাজিতদের কেউ কেউ কোনও দায়িত্বে নেই। তবে শুধু তাঁরাই নন, জেলা ও ব্লকে এখন পদহীন গুরুত্বপূর্ণদের সঙ্গে রাখতে হবে। পঞ্চায়েত ভোটে যুক্ত করতেই এই বৈঠকে ডাকা হচ্ছে। আর এরজন্য প্রায় সব জেলারই এমন নেতা, কর্মীদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা যতই শাসকদলের তরফে মুকুল-কাঁটার অস্তিত্বকে মুখে অস্বীকার করার প্রচেষ্টা করা হোক, কাউকেই আর দলীয় বৃত্তের বাইরে রাখার মত ঝুঁকি নিতে পারছে না তারা, অর্থাৎ রাজ্যে পরিবর্তনের পরিবর্তন হোক বা না হোক দল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়ে লড়াইটা ‘জমিয়ে’ দিয়েছেন মুকুল রায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!