এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শাসকদলের কর্মী সংগঠনে বড় পরিবর্তন, ক্ষমতা ছাড়লেন মন্ত্রী

শাসকদলের কর্মী সংগঠনে বড় পরিবর্তন, ক্ষমতা ছাড়লেন মন্ত্রী

Priyo Bandhu Media


শাসকদলের কর্মী সংগঠন আইএনটিটিইউসিতে দীর্ঘদিন ধরেই দুটি গোষ্ঠী বিদ্যমান। একটির নেতৃত্ত্বে রাজ্যের বিদ্যুত্‍মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় ও অপর গোষ্ঠীর নেতৃত্ত্বে রাজ্যসভার সাংসদ দোলা সেন এবং প্রাক্তন পরিবহন মন্ত্রী মদন মিত্র। রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পরে এই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষের খবর বারবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে। এমনকি স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ সত্ত্বেও এক সংস্থায় এক কর্মী সংগঠনের নীতি এখনও পুরোপুরি কার্যকর হয়নি। এই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে শোভনদেব বাবুর জনপ্রিয়তা বেশি হলেও, শাসকদলের শীর্ষনেতৃত্ত্বের পছন্দ দোলা সেন-মদন মিত্রকে।
আগেই দলের নির্দেশে শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়কে চা বাগান, বিদ্যুত্‍ পর্ষদের কর্মী সংগঠন থেকে সরে আসতে হয়েছে। এবার তাঁকে পদ ছাড়তে হল দক্ষিণবঙ্গ রাজ্য পরিবহণ নিগমের থেকেও। দুদিন আগে দুর্গাপুরে সংস্থার প্রধান কার্যালয়ে দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠকের শেষে শোভনদেব বাবু ঘোষণা করেন, এখন থেকে তিনি আর কর্মী সংগঠনের সভাপতির পদে থাকবেন না, বরং কর্মী সংগঠনের উপদেষ্টার ভূমিকা পালন করবেন। পরে তিনি সাংবাদিকদের জানান, মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন মন্ত্রী হয়ে এই ধরনের পদে থাকা যাবে না, তাই এই পদ ছাড়ার কথা ঘোষণা করছি। যে সব সংস্থায় এখনও দু’টি কর্মী সংগঠন রয়েছে, দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পুরনোটিই থেকে যাবে, নতুনটি তার সঙ্গে মিশে যাবে। বিরোধের কোনও জায়গাই নেই। কিন্তু শোভনদেব বাবুর এই বিবৃতির পরেও রাজনৈতিক মহলের ধারণা দলের চাপে পরেই শেষপর্যন্ত পদ ছাড়তে হল তাঁকে, কেননা বিভিন্ন জায়গার কর্মী সংগঠনের অনুষ্ঠানে গিয়ে মদন মিত্র নাম না করে বারবার তাঁকে তীব্র আক্রমন করেছেন। তাই তিনি পদ ছাড়লেও দুই গোষ্ঠীর লড়াইটা এখানেই থেমে যায় কিনা তা নিয়ে সন্দিহান রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!