এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > big Breaking নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তৃণমূলের, শোরগোল রাজ্যে!

big Breaking নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তৃণমূলের, শোরগোল রাজ্যে!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই তা নিয়ে সরব হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। যেখানে প্রকাশ্যে মুখ খুলে বিজেপির কথামত সব হচ্ছে বলে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলেছিলেন তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এবার নির্বাচনের বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার পরেও সরকারি জায়গা থেকে রাজনৈতিক দলের ব্যানার, পতাকা খোলা নিয়ে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে সরব হল শাসক দল। যেখানে সমস্ত রাজনৈতিক দলের পতাকা, ব্যানার খোলা হলেও কেন বিজেপির পতাকা এখনও পর্যন্ত থেকে গিয়েছে, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গেল তৃণমূল কংগ্রেসকে। আর এই ঘটনা রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

জানা গেছে, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার চন্দ্রকোনা পৌরসভা এলাকায় ঘাটাল চন্দ্রকোনা রাজ্য সড়ক, রেগুলেটেড মার্কেট সহ একাধিক জায়গায় বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর পোস্টার এবং হোর্ডিং লাগানো রয়েছে। তৃণমূলের সমস্ত পতাকা এবং ব্যানার খুলে নেওয়া হলেও কেন সরকারি জায়গায় বিজেপির এই পোস্টার রয়েছে, এখন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। দ্রুত যাতে তা খুলে নেওয়া হয়, তার জন্য দাবি জানাতে শুরু করেছেন শাসক দলের নেতা-নেত্রীরা।

বলা বাহুল্য, ভোট ঘোষণার দিনেই জারি হয়েছে আদর্শ আচরণ বিধি। আর সেই আদর্শ আচরণবিধি লাগু হওয়ার পর সরকারি জায়গায় কোনো রকম রাজনৈতিক দলের প্রচার বা সরকারি প্রকল্পের বিজ্ঞাপন দেওয়া যায় না। রীতিমত অভিযান চালিয়ে সরকারি আধিকারিকরা যে সমস্ত জায়গায় পোস্টার লাগিয়েছে, তা খুলতে শুরু করেছেন। এক্ষেত্রে কেন এই সমস্ত জায়গায় এখনও পর্যন্ত বিজেপির পোস্টার রয়েছে, এখন তা নিয়েই সরব হচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তৃণমূলের দাবি, তাদের সমস্ত রকম পোস্টার-ব্যানার খুলে নিয়েছে প্রশাসন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত শুভেন্দু অধিকারীর ছবি দিয়ে বিজেপির পোস্টার রয়েছে। অবিলম্বে তা খুলে ফেলতে হবে। নিয়ম সকলের জন্য এক হওয়া উচিত। যদিও বা এই ব্যাপারে পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তাদের দাবি, ভোট ঘোষণা হওয়ার পর থেকেই অনেক পোস্টার খুলে নেওয়া হয়েছে। সদ্য নির্বাচন ঘোষণা হয়েছে।

তাই সব ব্যানার খোলা সম্ভব হয়নি। যেগুলো থেকে গেছে, সেগুলো অবিলম্বে সরিয়ে নেওয়া হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এমনিতেই কমিশনের ভোট ঘোষণার সিদ্ধান্তে কিছুটা হলেও ক্ষুব্ধ তৃণমূল কংগ্রেস। আর এই পরিস্থিতিতে বিজেপির পোস্টার-ব্যানার খোলা নিয়ে রীতিমত পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে সরব হতে দেখা গেল ঘাসফুল শিবিরকে। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!