এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > Big Breaking পোস্টাল ব্যালটে চুরির আশঙ্কা, বড়সড় পদক্ষেপ বিজেপির

Big Breaking পোস্টাল ব্যালটে চুরির আশঙ্কা, বড়সড় পদক্ষেপ বিজেপির



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতে না হতেই একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগে রীতিমত সরগরম হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি। নির্বাচনের দামামা বাজার আগে থেকেই নির্বাচন কমিশনের কাছে রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি যে ভালো নয়, তা তুলে ধরার চেষ্টা করেছে বিজেপি। আর এবার নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতেই পোস্টাল ব্যালটে চুরির আশঙ্কা করে লালবাজারে গিয়ে কলকাতার পুলিশ কমিশনার সৌমেন মিত্রের সঙ্গে দেখা করলেন বিজেপি প্রতিনিধিদল। যে ঘটনাকে কেন্দ্র করে এখন কার্যত উত্তাল হয়ে উঠেছে রাজ্য রাজনীতি।

সূত্রের খবর, আজ সোমবার কলকাতা পুলিশের কমিশনার সৌমেন মিত্রের সাথে দেখা করেন বিজেপির একটি প্রতিনিধি দল। যেখানে পোস্টাল ব্যালটে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কারচুপি করার অভিযোগ তোলেন তারা। এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা স্বপন দাশগুপ্ত বলেন, “ভোটে নানা কারচুপির আমরা আশঙ্কা করছি। তার মধ্যে পোস্টাল ব্যালট চুরি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এসব আমরা কমিশনারকে জানিয়েছি। তিনজন পুলিশ অফিসারের নাম করে জানিয়েছে যে, তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত করা হোক। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কোনো কাজে তাদের যুক্ত করা যাবে না।”


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে শুধু অভিযোগ জানানোই নয়, এই ব্যাপারে কলকাতার পুলিশ কমিশনারকে একটি স্মারকলিপিও জমা দেওয়া হয়েছে বিজেপির পক্ষ থেকে। অর্থাৎ ভোটের দামামা বাজতে না বাজতেই এবার তৃণমূলের বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ করে কলকাতা পুলিশ কমিশনারের কাছে নিজেদের অভিযোগ জানিয়ে দিল ভারতীয় জনতা পার্টি। স্বাভাবিক ভাবেই বিজেপির এই অভিযোগের ফলে তৃণমূল কংগ্রেস যে কিছুটা হলেও অসুবিধার মুখে পড়বে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত বিশেষজ্ঞরা।

অনেকেই বলতে শুরু করেছেন, বিজেপি নেতৃত্ব প্রথম থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসকে যথেষ্ঠ চাপে রাখতে চাইছে। আর সেই কারণে নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার সাথে সাথেই পোস্টাল ব্যালট সম্পর্কে এই বিস্ফোরক অভিযোগ করে রীতিমত শোরগোল তুলে দিল ভারতীয় জনতা পার্টি। বলা বাহুল্য, অতীতে বারবার রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা এবং পুলিশ প্রশাসনের একাংশের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গেছে গেরুয়া শিবিরের নেতাদের।

আর এবার নির্বাচন ঘোষণা হওয়ার পর পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে দেখা করে বিজেপির এই ধরনের অভিযোগ যে আগামী দিনে রাজ্য রাজনীতিতে পারদকে আরও চড়িয়ে দেবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!