এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বিধানসভায় তৃণমূলের আসন কত হবে? চমকে দিলেন মুকুল রায়

বিধানসভায় তৃণমূলের আসন কত হবে? চমকে দিলেন মুকুল রায়



2019 এর লোকসভা ভোটে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কোনরকমে জিতে নিজেদের গড় বাঁচিয়েছেন। পশ্চিমবঙ্গে 42 টি আসনের মধ্যে তাঁরা অধিকার করেছিলেন 22 টি আসন। কোনরকমে মান বাঁচিয়েছেন তাঁরা। অন্যদিকে, বিজেপি দল 2014 থেকে 2019 এই পাঁচ বছরে তাঁদের সংগঠনকে পশ্চিমবঙ্গে এমন জায়গায় নিয়ে গেছে, যার ফলে তাঁদের আসন সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে 2 থেকে 18।  পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি তৃণমূলের গড়ে জোর ধাক্কা লাগিয়েছে, তার প্রমাণ 2019 এর লোকসভা ভোট। এই ধাক্কা সামলাতে তৃণমূল দল রীতিমত হিমশিম খাচ্ছে। অন্যদিকে, বিজেপি 2021 এর লক্ষ্যেই পশ্চিমবঙ্গে তাদের সংগঠনকে আরো শক্তিশালী করছে। 2021 এর বিধানসভা ভোটে বিজেপির লক্ষ্য পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা দখল করা এবং তৃণমূলকে তার গোড়া থেকে উপড়ে ফেলা।

এবার 2021 এর বিধানসভা ভোটের লক্ষ্যে রাজ্য বিজেপি আঁটঘাট বেধে প্রচারে নেমেছে। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে সংগঠনের পরিকল্পনায় তাঁরা 100% সফল। তাই বিধানসভা ভোটে বিজেপির জেতার ব্যাপারেও 100% নিশ্চিত হয়ে মুকুল রায় যথেষ্ট জোরের সাথে দাবি জানালেন, তৃণমূল দল 2021 এর বিধানসভা ভোটে নিশ্চিহ্ন হতে চলেছে।

এরআগে রাজনৈতিক চাণক্য মুকুল রায় লোকসভা ভোটের প্রাক্কালে বিজেপির আসন সংখ্যা নিশ্চিত করেছিলেন 23 থেকে 26 টি‌। কিন্তু সে ক্ষেত্রে বিজেপি 18 তেই থেমে যায়। যদিও দুই থেকে আঠারো প্রাপ্তি যথেষ্ট প্রশংসার দাবি রাখে।  মুকুল রায় 2019 এর লোকসভা নির্বাচনের প্রচারপর্বে বলেছিলেন, তৃণমূলের আসনসংখ্যা কুড়িতেই আটকে থাকবে। এবং মুকুল রায়ের কথা সত্যি করে তৃণমূল মাত্র 22 টি আসনেই আটকে যায়।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এবার আরও একবার বিধানসভা ভোট নিয়ে এদিন মুকুল রায় ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন তৃণমূলের জন্য। তিনি বলেছেন, তৃণমূল কংগ্রেস 294 টি আসনের মধ্যে 60 টি আসনও পাবে না। অবশ্য এর আগে মুকুল রায় দাবি করেছিলেন, তৃণমূল বিধানসভা ভোটে 30 টি আসন পাবে না, এমনকি তাঁরা বিরোধীদলের তকমাও হারাবে।

মুকুল রায়ের এই বিপরীত বক্তব্যে প্রশ্ন উঠেছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি, লোকসভা ভোটের পরেই যেভাবে তৃণমূল থেকে বিজেপি দলে যোগদান করার প্রবণতা দেখা গিয়েছিল, সেই প্রবণতা বর্তমানে অনেকটাই কমেছে। উল্টে যাঁরা দলবদল করেছিলেন, তাঁরা আবার ফিরে আসছেন পুরনো দলে। সুতরাং মুকুল রায়ের বক্তব্য এই তত্ত্বের ওপরই ভর করে সংখ‍্যাতত্ত্বের বিচারে তৃণমূলের আসন সংখ্যা দ্বিগুণ করেছে বলে ধারণা।

এদিন নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এনআরসি সচেতনতা নিয়ে একটি সমাবেশ করা হয়। সেখানে আমন্ত্রিত ছিলেন মুকুল রায়। সেই মঞ্চ থেকেই এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে তীব্র আক্রমণ করে তিনি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজনৈতিক জীবন শেষ। এবার বাংলা থেকে তিনি বিদায় নেবেন।

এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে আপাতত তৃণমূল দলের তরফ থেকে কোনরকম বিবৃতি দেওয়া হয়নি। তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের দাবি, বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে যেভাবে সংগঠন বাড়িয়ে চলছে, তাতে মুকুল রায়ের দাবি কিন্তু খুব সহজেই পূরণ হবে বলে মনে হয়। অন্যদিকে, রাজনৈতিক মহলের একাংশ মুকুল রায়ের এই অনুমানকে যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে দেখছেন, বিজেপির সাংগঠনিক দক্ষতার প্রয়াস দেখে। অতএব 2021 এর বিধানসভা ভোটের দিকেই এখন লক্ষ্য সবার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!