এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > বিধানসভার আগে দ্বন্দ্ব এড়াতে সব গোষ্ঠীকে নিয়ে কমিটি তৃণমূলের! আদৌ লাভ হবে কি? প্রশ্ন দলেই!

বিধানসভার আগে দ্বন্দ্ব এড়াতে সব গোষ্ঠীকে নিয়ে কমিটি তৃণমূলের! আদৌ লাভ হবে কি? প্রশ্ন দলেই!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – একদিকে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে তৃণমূল শিবিরে জোর কদমে। অন্যদিকে তৃণমূলের মাথাচাড়া দেওয়া গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রীতিমতো চাপের মুখে ঠেলে দিয়েছে দলকে। আর সেখানে দাঁড়িয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের নিরিখে মালদা জেলার নাম উঠে আসে সবার ওপরে। সম্প্রতি মালদা জেলার ব্লক কমিটি তৈরি হওয়া নিয়ে এমনিতেই উত্তেজনা চরমে। এই পরিস্থিতিতে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব আটকাতে এবং সংগঠন আরো মজবুত করতে পদক্ষেপ নিলেন মালদা জেলার সভাপতি মৌসুম নুর।

জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে দলের জেলার কোর কমিটির পাঁচজনের বৈঠক হয় এবং সেখানেই জেলা কমিটির চূড়ান্ত তালিকা তৈরি করা হয়েছে ও রাজ্য কমিটিতে তা অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। সূত্রের খবর, গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চাপা দিতে প্রায় 100 জন নেতাকে জেলা কমিটিতে স্থান দেওয়া হয়েছে। সম্প্রতি কলকাতায় মালদা জেলার ব্লক এবং শহর কমিটির সভাপতির নাম চূড়ান্ত করতে জেলা কমিটির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছিল। কিন্তু কোনভাবে সেই ব্লক সভাপতিদের নামের তালিকা ঘোষণা না করা সত্বেও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়।

আর তাই নিয়েই রীতিমতো খন্ডযুদ্ধ শুরু হয় মালদায়। অন্যদিকে দলীয় সূত্রে জানা গেছে, কোনরকম গন্ডগোল যাতে না হয়, তার জন্য ব্লক ও জেলা কমিটির ঘোষণা একসঙ্গে হবে। এমনকি দলের যুব সংগঠনের জেলা কমিটির ব্লক সভাপতিদের তালিকা একইসঙ্গে ঘোষণা করা হতে পারে। প্রসঙ্গত, গত লোকসভা ভোটের ফলাফলের পর মালদা জেলার কমিটি ভেঙে দেয় দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেসময় জেলা সভাপতি নির্ধারিত হন মৌসম নুর। তার সাথে মোয়াজ্জেম হোসেন হন চেয়ারম্যান ও বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়কে কার্যকরী সভাপতি পদে আনা হয়।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এই তিনজনের জেলা কমিটি গড়ে দেওয়ার কয়েক মাসের মধ্যেই দল পরিচালনার জন্য 5 জনের আরেকটি কোর কমিটি তৈরি করে রাজ্য দলীয় নেতৃত্ব। আর সেখানে মৌসম নুর সভাপতি, মোয়াজ্জেম চেয়ারম্যান এবং মানব মুখোপাধ্যায়, দুলাল সরকার এবং অম্লান ভাদুরিকে কো অর্ডিনেটর করা হয় বলে জানা গেছে। এরপর মালদা জেলার নতুন জেলা কমিটির তালিকা ঘোষণা করার কথা থাকলেও হয়নি। তাই এবার পাকাপাকিভাবে বিধানসভা নির্বাচনের আগে জেলা কমিটি তৈরি করতে দলের জেলা কার্যালয়ে নুর ম্যানশনে কোর কমিটি বৈঠকে বসেন এবং সেখানেই তালিকা চূড়ান্ত হয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই কমিটির তালিকাতে জেলায় দলের প্রায় 100 জন নেতা রয়েছেন। সহ সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক পদে অন্তত 15 থেকে 20 জনকে রাখা হয়েছে। যদিও দলের এই সাংগঠনিক ও আভ্যন্তরীণ বৈঠক নিয়ে তৃণমূল সভাপতি মৌসম নুর কোন মন্তব্য করতে চাননি। বিশেষজ্ঞদের মতে, মালদা জেলা এই মুহূর্তে যথেষ্ট উত্তেজনাপ্রবণ এলাকা। মালদা জেলা নিয়ে খুব ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পথে দলীয় নেতৃত্ব। বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলের কাউকেই চটাতে চাইছে না নেতৃত্ব বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহলের একাংশ। কিন্তু এতকিছু করেও কি দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ আটকানো যাবে ? উঠেছে সেই প্রশ্ন।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!