এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > তৃণমূল > ভোটের মুখে আবার ভাঙ্গন তৃণমূলে, টালমাটাল শাসকদল

ভোটের মুখে আবার ভাঙ্গন তৃণমূলে, টালমাটাল শাসকদল



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – বিধানসভা নির্বাচনের কয়েক মাস আগে থেকেই শুরু হয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের ভাঙ্গন। তৃণমূল দলের একের পর এক নেতা-কর্মী- সমর্থক দল ছাড়তে শুরু করেছেন। শীর্ষ নেতৃত্বের একাধিক প্রচেষ্টাও রোধ করতে পারেনি দলের ভাঙ্গনকে। এই পরিস্থিতিতে আবার ভাঙ্গন দেখা দিল রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলে। গতকাল শান্তিপুরে তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান সহ শতাধিক কর্মী তৃণমূল ছেড়ে যোগদান করলেন বিজেপিতে।

গতকাল শান্তিপুরে রোডশোয়ে যোগদান করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আর গতকাল রাতেই শান্তিপুরে বড়সড় ভাঙ্গন দেখা দিল তৃণমূলে। পঞ্চায়েত প্রধান সহ শতাধিক কর্মী যোগদান করলেন বিজেপিতে। গতকাল রাতে শান্তিপুর বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকারের নেতৃত্বে এই দলবদল চলে। নবাগতদের হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দিলেন তিনি। একসঙ্গে, এতো জনের বিজেপিতে যোগদানে কার্যত উৎসবের মেজাজে ছিল বিজেপি শিবির।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

গতকাল রাতে নৃসিংহপুর ফেরিঘাটে বিজেপির একটি দলীয় অফিসের উদ্বোধন করেছিলেন বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার। সেখানেই তাঁর নেতৃত্বে এই দলবদল। তৃণমূলের বহু কর্মী বিজেপিতে যোগদান করলেন। আবার বাগআঁচড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মমতা ধারা যোগদান করলেন বিজেপিতে গতকাল। তাঁর সাথে বহু তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগদান করলেন। গতকাল এত জনের একসঙ্গে বিজেপিতে যোগদানের ফলে নির্বাচনের মুখেই শান্তিপুরে যথেষ্ট বিপাকে পড়ে গেলো রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল।

নির্বাচনে এর একটা বড়সড় প্রভাব পড়ার সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা। গতকাল বিজেপি প্রার্থী জগন্নাথ সরকার জানালেন, তৃণমূল কংগ্রেস হলো গণতন্ত্র বিরোধী দল। তৃণমূল সরকার গণতন্ত্র মানে না। কেন্দ্রীয় সরকারের প্রকল্প গুলিকে চুরি করে নিজেদের নামে চালায় তৃণমূল। বিজেপিই একমাত্র দল, যারা প্রকৃত উন্নয়ন করতে পারে। এ কারণে সবাই বাংলার প্রকৃত উন্নয়নের খাতিরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করলেন।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!