এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ভাটপাড়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের পুলিশ মন্ত্রীকে পদত্যাগের দাবি কংগ্রেস সিপিআইএম নেতার

ভাটপাড়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা রাজ্যের পুলিশ মন্ত্রীকে পদত্যাগের দাবি কংগ্রেস সিপিআইএম নেতার



নির্বাচনের অনেক আগে থেকেই রাজনৈতিক সংঘর্ষ রাজ্যে চরম আকার ধারণ করেছিল। যার মধ্যে অন্যতম এলাকা ছিল ভাটপাড়া। তবে লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর সেই ভাটপাড়া কিছুটা শান্ত থাকলেও গতকাল ফের সেখানে অশান্তি শুরু হয়।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভাটপাড়ার নতুন থানা উদ্বোধনের কথা থাকলেও সেই ভাটপাড়ায় 200 গজের মধ্যে বোমা গুলির লড়াই শুরু হয়। যে ঘটনায় দুই ব্যক্তির মৃত্যু হয়। যার পরেই পরিস্থিতি যাতে হাতের বাইরে না চলে যায়, তার জন্য ভাটপাড়া এলাকায় 144 ধারা জারি করার পাশাপাশি কোনো রাজনৈতিক রঙ না দেখে দোষীদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে ফলাফল প্রকাশের পর একের পর এক রাজনৈতিক হিংসার ঘটনায় ইতিমধ্যেই শাসকদলের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে শুরু করেছে বিজেপি। মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়রা দাবি করেন, গোটা বাংলায় হিংসাত্মক পরিস্থিতির জন্য দায়ী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুলিশ কেন নিরীহ মানুষের ওপর গুলি চালালো তার জবাব মুখ্যমন্ত্রীকেই দিতে হবে। তবে শুধু বিজেপি নয়, এবার এই ভাটপাড়ার অশান্তি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র।

এদিন তিনি বলেন, “রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা বলে কিছু নেই। ভাটপাড়ায় এত বড় ঘটনা ঘটা সত্ত্বেও সেখানে পুলিশ শান্তি ফেরাতে ব্যর্থ। পুলিশ মন্ত্রী হিসেবে যদি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গোটা পরিস্থিতি সামলাতে না পারেন, তাহলে ওনার পদত্যাগ করা উচিত।” অন্যদিকে সমস্ত দলগুলিকে নিয়ে রাজ্যপাল বৈঠক করার পরেও যে ভাবে রাজ্যে সন্ত্রাস চলছে, এদিন তা নিয়েও সরব হন প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি।

তুমি শুধু বিজেপি-কংগ্রেস নয়, এবার বিধানসভায় দাড়িয়ে ভাটপাড়ার উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুললেন বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী। সূত্রের খবর, এদিন বিধানসভার সাংবাদিক বৈঠকে এই বাম বিধায়ক বলেন, “ভাটপাড়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনতে প্রশাসন যেভাবে ব্যর্থ হয়েছে, তাতে এই সমস্ত কিছুর জন্য মুখ্যমন্ত্রীর উপরই দায় বর্তায়। আসলে ভাটপাড়ায় এলাকা দখলের লড়াই চলছে এবং উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে রাজনীতির রং লাগানো হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর উচিত অবিলম্বে সর্বদলীয় বৈঠক ডেকে নিজের ব্যর্থতা স্বীকার করা।”

অন্যদিকে কিছুদিন আগেই ভাটপাড়ায় মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় যাওয়ার সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে যেভাবে কিছু যুবক জয় শ্রীরাম স্লোগান দেন এবং তাকে কেন্দ্র করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে ক্ষিপ্ত হন, এদিন সেই ঘটনারও তীব্র সমালোচনা করেন বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তী।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, রাজ্যে যেভাবে সন্ত্রাস চলছে তাতে বর্তমানে আইনশৃঙ্খলা ইস্যুতে শাসকদলের বিরুদ্ধে চাপ সৃষ্টি করছে বিজেপি। আর এবার বিজেপির পথে হেঁটেই রাজ্যে শান্তি স্থাপন করতে না পারলে পুলিশমন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হলেন কংগ্রেসের সোমেন মিত্র।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!