এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ‘ভাইপো’ কে নিয়ে তৃণমূল নেতা ও দিলীপ ঘোষের চাপানউতোর, শুরু জোর শোরগোল !

‘ভাইপো’ কে নিয়ে তৃণমূল নেতা ও দিলীপ ঘোষের চাপানউতোর, শুরু জোর শোরগোল !



আপনাদের সুবিধার্থে খবরের শেষে বিধানসভা ২০২১ উপলক্ষে আমাদের করা সর্বশেষ সমীক্ষার প্রতিটির লিঙ্ক দেওয়া আছে।

আপনার মতামত জানান -

প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গতকাল রামনগরের এক সভা থেকে তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছিলেন কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি তাঁর বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে কৈলাস বিজয়বর্গীয় সহ বিজেপি নেতৃত্বকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ। এক সাংবাদিক সম্মেলন করে বিজেপির প্রতি চ্যালেঞ্জ জানালেন কুণাল ঘোষ। তাঁর কথায়, যদি সাহস থাকে, তবে ভাইপো না বলে তাঁর প্রকৃত নাম বলুন। কুনাল ঘোষ কটাক্ষ করেছেন যে, বিসিসিআইয়ে বসে আছেন কৈলাসের ভাইপো। তিনি প্রশ্ন করেছেন যে, রাজনীতিবিদদের পরিবারের কোনো সদস্য কি রাজনীতিবিদ হতে পারেন না?

তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ অভিযোগ করেছেন যে, গতকাল কেন্দ্রীয় বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় রামনগরে সম্পূর্ণ মিথ্যা ভাষণ দিয়েছিলেন। তিনি অভিযোগ করেছেন যে, তৃণমূলের যুব নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিয়ে মিথ্যাচার করেছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তাঁর কথায় রাজনীতিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাল্লা দিতে না পেরেই তাঁর চরিত্র হনন করেছেন তিনি। কুনাল ঘোষ দাবি করেছেন যে, বিজেপি ভয় পাচ্ছে বলেই আক্রমণ করছে তৃণমূলের যুব নেতাকে।

এর সঙ্গে সঙ্গেই কৈলাস বিজয়বর্গীয়র পুত্র আকাশ বিজয়বর্গীয়র প্রসঙ্গ টেনে বিজেপিকে আক্রমণ করলেন কুনাল ঘোষ। এ প্রসঙ্গে তিনি জানালেন যে, কৈলাস বিজয়বর্গীয়র পুত্র আকাশ বিজয়বর্গীয় একবার পুরো কর্মীদের মারধর করার ঘটনায় অভিযুক্ত ছিলেন। তাঁর কথায়, আকাশ বিজয়বর্গীয় গুন্ডামি করে গ্রেফতার হয়েছিলেন, কিন্তু তিনিই আবার বিজেপির বিধায়ক।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এরপর বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে নিয়েও তীব্রভাবে কটাক্ষ করলেন কুনাল ঘোষ। মুকুল রায় প্রসঙ্গে তিনি জানালেন যে, গত ২০১৫ সালে বিজেপি বলেছিল ‘ভাগ মুকুল ভাগ। কিন্তু, এখন সে মুকুল রায়কেই দলে নিয়ে এসেছে বিজেপি। তাঁর কথায়, মুকুল রায়কে যারা দলে নিয়েছেন, তারা সারদা নিয়ে জ্ঞান দিতে পারেন না। তিনি জানালেন, যে সিন্ডিকেটের কথা বলেছিলেন, তিনি আজ আছেন বিজেপিতে।

তাঁর কথায় যদি দুর্নীতির অভিযোগ থাকে তবে তাঁর বিষয়ে তদন্ত হোক। কুণাল ঘোষ জানালেন যে, তিনি সিবিআইয়ের কাছে অনুরোধ করেছিলেন যে, মুকুল রায়কে তাঁর মুখোমুখি বুঝিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক। কিন্তু এখনও সে বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি সিবিআই। তিনি জানালেন যে, মির্জার বয়ান অনুযায়ী মুকুল রায়কেও গ্রেফতার করা উচিত ছিল, কিন্তু তা হয় নি।

তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষের বিজেপি নেতৃত্ব সম্পর্কে তীব্র কটাক্ষর পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ তাঁর মন্তব্যের কড়া প্রতিক্রিয়া জানালেন। যেখানে তিনি বললেন যে, কে দিদি, আর কে ভাইপো, সেটা সকলেই জানেন। তাই আলাদা করে বলার কিছু নেই। আর নাম ধরে যখন বলার সময় আসবে, তখন ঠিক বলে দেবেন তিনি। তিনি জানান, বিজেপি কাউকে কখনো ভয় করে না। যদি বিজেপি ভয় করতো, তাহলে গত লোকসভা নির্বাচনে কখনো ১৮ টি আসন পেত না। এভাবেই, আগামী বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে জমে উঠলো দুই প্রতিদ্বন্দ্বী দলের নেতাদের পরস্পরের প্রতি তীব্র চাপানউতোর।

একনজরে দেখে নিন আমাদের সর্বশেষ বিধানসভা ২০২১ ওপিনিয়ন পোল –

# মালদহ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# উত্তর দিনাজপুরে জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# জলপাইগুড়ি ও কালিম্পঙ জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# আলিপুরদুয়ার ও দার্জিলিং জেলার ওপিনিয়ন পোল –

# কুচবিহার জেলার ওপিনিয়ন পোল –

আপনার মতামত জানান -
আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!