এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বেঙ্গালুরুর সিএএ বিরোধী সভা থেকে দেশবিরোধী স্লোগান, ঘটনায় তুমুল হৈ চৈ রাজনৈতিক মহলে

বেঙ্গালুরুর সিএএ বিরোধী সভা থেকে দেশবিরোধী স্লোগান, ঘটনায় তুমুল হৈ চৈ রাজনৈতিক মহলে



দেশের জনসাধারণের মধ্যে ইতিমধ্যে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে তুমুল বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। দেশের অস্থির পরিস্থিতিতে এই মুহূর্তে মানুষের ক্ষোভ ক্রমশ আগ্নেয়গিরির আকার ধারণ করেছে। বিভিন্ন জায়গায় কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে অবস্থান বিক্ষোভ চলছেই। আর এরই মধ্যে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশে গিয়ে উস্কানিমূলক বক্তব্য রাখলেন এআইএমআইএম নেতা ওয়ারিশ পাঠান। ঘটনাটি ঘটেছে বেঙ্গালুরুতে। শুধু তাই নয়, এই প্রতিবাদ মঞ্চে উঠে দেশ বিরোধী স্লোগান দিলেন বেঙ্গালুরুর এক তরুণী

এই ঘটনার পর বেশ কিছুদিন কেটে গেলেও এখনো পর্যন্ত এআইএমআইএম নেতার বিরুদ্ধে কোনো রকম ব্যবস্থা গ্রহণ গ্রহণ করেনি মহারাষ্ট্র সরকার। এমনকি সেই স্লোগানের বিরুদ্ধে শিবসেনার পক্ষ থেকে কোনরকম বিরোধিতাও করা হয়নি। মঙ্গলবার বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিশ এই ঘটনাকে মনে করিয়ে দিয়ে শিবসেনাকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘শিবসেনা হয়ত চুড়ি পরে আছে। তবে আমরা বলছি কেউ যদি এরকম উস্কানিমূলক কোনও কথা বলে শান্তি নষ্টের চেষ্টা করে তবে তার ভাষাতেই তাকে জবাব দেওয়া হবে। বিজেপির এইটুকু শক্তি রয়েছে।’

অন্যদিকে, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়ে ইতিমধ্যে দেশের মধ্যে বেশ কিছু গোষ্ঠী বিরোধিতা করে আসছেন, যার মধ্যে আসাদউদ্দিন ও তার দল এআইএমআইএম প্রধান ভূমিকা গ্রহণ করেছে। তবে প্রতিটি সভা থেকেই উস্কানিমূলক মন্তব্য আসছে বলে দাবি করছে কেন্দ্রীয় মহল। এর আগে বিরোধী একটি সভা থেকে আসাদউদ্দিন এর দলের সাংসদ ওয়ারিশ পাঠান মন্তব্য করেন ‘100 কোটির জন্য 15 কোটি মুসলিমই যথেষ্ট।’ এদিকে আসাদুদ্দিন ওয়েইসি দাবি করেন, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় শুধুমাত্র মুসলিমদের টার্গেট করছে বিজেপি নেতারা। অন্যদিকে পাঠান অবশ্য তার উস্কানি মূলক মন্তব্যের জন্য ইতিমধ্যে ক্ষমা চেয়েছেন।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তবে বেঙ্গালুরুতে যে ঘটনাটি নজরে সবথেকে বেশি এসেছে, তা হলো অমূল্য নামের এক তরুনীর ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান দেওয়া। ব্যাঙ্গালুরুতে এআইএমআইএম এর সিএএ বিরোধী একটি সভাতে আসাদউদ্দিন ওয়েইসির সামনেই অমূল্য নামের এক তরুণী মঞ্চে উঠে ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ স্লোগান দেয়। সঙ্গে সঙ্গে এই ঘটনাটির ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। যদিও উক্ত তরুণীর স্লোগানের পরেই আসাদউদ্দিন বলেন, তাঁরা কোনোভাবেই শত্রু দেশ পাকিস্তানকে সমর্থন করেন না। এরপর বিতর্কিত স্লোগান দেওয়ার অপরাধে ওই তরুণীকে গ্রেপ্তার করা হয়। ইতিমধ্যে তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা রুজু করেছে পুলিশ। অন্যদিকে কংগ্রেস এই ঘটনা প্রসঙ্গে বলে,’শত্রু দেশের জন্য স্লোগান তোলা ভুল কাজ। সরকার কী পদক্ষেপ নেয়, দেখা যাক।’

তবে এই ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক ময়দানে নেমে পড়েছে বিজেপি। বিজেপি দাবি করেছে, গোটা দেশে যাতে অস্থির পরিস্থিতি তৈরি হয় তার জন্যই পরিকল্পনামাফিক বিভিন্ন গোষ্ঠী সিএএর বিরোধীতায় এধরনের ঘটনা ঘটাচ্ছে। অন্যদিকে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, এমনিতেই এই মুহূর্তে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকপঞ্জি নিয়েই দেশের অবস্থা রীতিমতো ঘোরালো হয়ে উঠছে দিন দিন। তার মধ্যে এরকম উস্কানিমূলক মন্তব্য দেশের শান্তি ভঙ্গ করবে। তাই অবিলম্বে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের এ বিষয়ে নজর দেওয়া উচিত। আপাতত পুরো পরিস্থিতি কোন দিকে এগোচ্ছে সেদিকে লক্ষ্য রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!