এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ফের মমতা মোদী সংঘাত ,জেনে নিন কারণ

ফের মমতা মোদী সংঘাত ,জেনে নিন কারণ



 

অতীতে বিভিন্ন বিষয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বাংলার প্রতি বিমাতৃসুলভ আচরণের অভিযোগ করেছেন রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নেত্রীরা। এক্ষেত্রে বাংলা সবাইকে পথ দেখায় বলে দিল্লির শাসকবর্গ বিজেপির বিরুদ্ধে মাঝেমধ্যেই সরব হতেও দেখা গেছে তৃণমূল নেত্রী তথা বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

বস্তুত, বর্তমানে নাগরিকত্ব সংশোধনী ইস্যু নিয়ে তৈরি হয়েছে রাজ্য বনাম কেন্দ্রের মধ্যে। আর এই পরিস্থিতিতে আগামী 26 জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির রাজপথে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো না দেখানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হতে শুরু করল রাজ্য।

সূত্রের খবর, কেন্দ্রের তরফে আগামী 26 জানুয়ারি দিল্লির রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বাংলার ট্যাবলো নিয়ে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে! কিন্তু কেন কেন্দ্র এরূপ নিষেধাজ্ঞা জারি করল! এখন তা নিয়েই তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। একাংশ বলছেন, প্রতিটি রাজ্যের নিজস্ব স্বতন্ত্র ভাবমূর্তি প্রদর্শন করতে বলা হয় 26 জানুয়ারি ট্যাবলোতে। সেদিক থেকে বাংলার তরফে ট্যাবলোর জন্য তিনটি বিষয়ে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারকে। কিন্তু তার মধ্যে একটি প্রস্তাবকেও মান্যতা দেয়নি কেন্দ্র। যার ফলে 26 জানুয়ারি দিল্লির রাজপথে এবার অনুমতি পাচ্ছে না বাংলার ট্যাবলো।

কিন্তু বাংলার তরফে কি এমন বিষয় নিয়ে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল! যার কারণে সেই বাংলার ট্যাবলো প্রদর্শিত করা যাচ্ছে না! জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফ থেকে কন্যাশ্রী, জল ধরো জল ভরো এবং সবুজ বাঁচাও বিষয়ে ট্যাবলো করার জন্য কেন্দ্রকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এই তিনটে বিষয়েই রাজ্যের দেওয়া প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছে কেন্দ্র।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

সেক্ষেত্রে কেন্দ্রের যুক্তি, 26 শে জানুয়ারি দিল্লির রাজপথে যে ট্যাবলো গুলো দেখানো হয়, তার মধ্যে সেই রাজ্যের নিজস্বতা রাখতে বলা হয়। কিন্তু রাজ্যের কন্যাশ্রী এবং জল ধরো জল ভরো প্রকল্প দুটোই কেন্দ্রের প্রকল্পের অনুসরণ করা। তাই এক্ষেত্রে রাজ্যের কোনো নিজস্বতা নেই। তাই এই দুটো প্রকল্প দেখানো যাবে না। অন্যদিকে সবুজ বাঁচাও প্রকল্পের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের কোনো নিদর্শন পাওয়া যাচ্ছে না। তাই সেই প্রকল্পেরও অনুমোদন দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। আর যার ফলে পশ্চিমবঙ্গের দেওয়া তিনটি প্রকল্প নিয়ে প্রজাতন্ত্র দিবসের ট্যাবলোর প্রস্তাব রীতিমতো খারিজ করে দিয়েছে ভারত সরকার।

আর কেন্দ্রের এহেন যুক্তি নিয়ে রাজ্যের তরফে অভিযোগ করা হচ্ছে, আসলে বাংলাকে খাটো করে দেখানোর জন্যই এহেন প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছে কেন্দ্রীয় সরকার। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, যদি এইরকম ঘটনা ঘটে থাকে এবং তার জন্য যদি রাজ্যের ট্যাবলো দিল্লির রাজপথে দেখানো না হয়, তাহলে তা বড়সড় মোড় নিতে পারে। সেদিক থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক আচরণের অভিযোগ তুলে সরব হতে পারে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস। এখন শেষ পর্যন্ত গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, আদৌ বাংলার ট্যাবলো দিল্লির রাজপথে দেখা যায় কিনা! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!