এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মমতার ঘুম উড়িয়ে বাংলা দখলে এবার বিজেপির পাশাপাশি মাঠে নামলো মুখ্যমন্ত্রীর বন্ধু

মমতার ঘুম উড়িয়ে বাংলা দখলে এবার বিজেপির পাশাপাশি মাঠে নামলো মুখ্যমন্ত্রীর বন্ধু



তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে এখন বাংলায় মূল লড়াই হচ্ছে ভারতীয় জনতা পার্টির। তবে দুই রাজনৈতিক দলের মাঝে এই লড়াইয়ের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্বস্তি বাড়াতে এবার ময়দানে নেমে পড়লো দিল্লির শাসক দল আম আদমি পার্টি। বস্তুত পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বাধিনায়ক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক দিল্লির অরবিন্দ কেজরিওয়ালের। সেদিক থেকে গত বিধানসভা নির্বাচনে দিল্লিতে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী।

কিন্তু সেই অরবিন্দ কেজরিওয়াল দিল্লির ক্ষমতা দখল করে এবার যে বাংলার ক্ষমতা দখলের জন্য টার্গেট নেবেন এবং তারই পাশে থাকা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অস্বস্তি বাড়িয়ে দেবেন, তা স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারেনি তৃনমূল কংগ্রেস। তবে এবার সেই অকল্পনীয় ঘটনাটাই ঘটতে চলেছে।

জানা গেছে, বাংলায় সংগঠন তৈরিতে তৎপর হয়ে আম আদমি পার্টি ইতিমধ্যেই তাদের শ্লোগান ঠিক করে ফেলেছে। যা হল, “রাজনীতি বদলান। বাংলা বদলে যাবে।” ইতিমধ্যেই জেলায় জেলায় সংগঠন তৈরিতে নজর দিয়েছে আম আদমি পার্টি। কিন্তু যে রাজ্যে তাদের কিছু নেই, সেখানে তারা কিভাবে সংগঠন তৈরি করবে!

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

জানা যাচ্ছে, পশ্চিমবাংলায় সংগঠন তৈরির জন্য আম আদমি পার্টির কাছে বিজেপি কোনমতেই অচ্ছুত নয়। অর্থাৎ দিল্লিতে বিজেপি আম আদমি পার্টির শত্রু হলেও, বাংলায় সংগঠন তৈরিতে সেভাবে আগেভাগেই যে কাউকে শত্রু করতে চাইছে না বাংলার আম আদমি পার্টির নেতৃত্বরা, তা কার্যত পরিষ্কার হয়ে গেছে রাজনৈতিক মহলের কাছে।

শুধু তাই নয়, বাংলা যেহেতু সংস্কৃতি প্রবন এলাকা, সেহেতু সেই বাংলার বুদ্ধিজীবী সম্প্রদায়কেও পাশে পেতে চাইছে আম আদমি পার্টি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন যেহেতু পশ্চিমবঙ্গের চালিকাশক্তি বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেস তাই সেখানে সংগঠন গড়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই দেবে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের দল।

কিন্তু দিল্লিতে বিজেপির বিরোধিতায় সুর চড়ালেও, বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বৈরিতা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেনে নেবেন কি না, এখন সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহলে। তবে যে যাই বলুন না কেন, নিজের দলের সংগঠনকে বৃদ্ধি করতে 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে বাংলায় ঘাঁটি গেড়ে এখন কোন দিকে এগোয় মাফলার ম্যানের দল, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!