এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় বেশি মানুষের মৃত্যুর কারণ কি? এবার জানালেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী, জেনে নিন বিস্তারিত!

বাংলায় বেশি মানুষের মৃত্যুর কারণ কি? এবার জানালেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী, জেনে নিন বিস্তারিত!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –চিকিৎসকরা বলছেন, করোনা ভাইরাসকে নিয়ে যতটা ভয় সকলে পাচ্ছেন, রোগটা ততটা ভয়ের নয়। একসাথে অনেকে আক্রান্ত হয়ে যাওয়ায় হাসপাতালে চিকিৎসা পরিষেবা কিছুটা হলেও ব্যাহত হচ্ছে। যার কারণে সঠিকভাবে চিকিৎসা না করার জন্য অনেকেই এই রোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করছেন। ইতিমধ্যেই বাংলায় করোনা ভাইরাসে হু হু করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। আর এই পরিস্থিতিতে এবার বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা পরিকাঠামো নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

যেখানে বাংলায় করোনা ভাইরাসে লাগাতার মৃত্যুর জন্য বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা ব্যবস্থাকে দায়ী করলেন তিনি। সূত্রের খবর, বুধবার নবান্নে সর্বদলীয় বৈঠক থেকে এই ব্যাপারে নিজের বক্তব্য রাখেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়‌। তিনি বলেন, “বেসরকারি হাসপাতাল গুলোর অবহেলায় বাংলায় বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নয়ত আরো কিছু মানুষের জীবন বাঁচানো যেত। বেসরকারি হাসপাতালগুলো করোনার চিকিৎসায় বেশি নজর দিয়েছিল এবং হৃদরোগ ও কিডনি সমস্যার মত করোনা ভাইরাস রোগের কো-মরবিড অবস্থাকে অবহেলা করেছে। ফলস্বরূপ কয়েক জনের মৃত্যু হয়েছে। আমি দুঃখিত। এই বিষয়ে হাসপাতালগুলোকে নির্দেশিকা পাঠাচ্ছে রাজ্য সরকার।”

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তবে এই মৃত্যু আটকাতে এদিন বেসরকারি হাসপাতালের কাছে বেশ কিছু আবেদন করতেও দেখা যায় পশ্চিমবঙ্গের প্রশাসনিক প্রধান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেন, “যখন কোনো কারণে আক্রান্ত সংকটজনক হৃদরোগী আপনাদের কাছে আসছেন, তখন প্রথমে তার হৃদরোগের বিষয়টা দেখুন। পরে তার করোনা সমস্যা দেখতে পারবেন।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বক্তব্য কিছুটা হলেও সত্যি। কেননা বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে যদি করোনা আক্রান্তের পাশাপাশি অন্য কোনো রোগ শরীরে বাসা বাঁধে এবং সেই রোগীরা যদি যান, তাহলে তাদের আগে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে‌। যার ফলে অন্যান্য রোগগুলো তাদের শরীরে আরও বেশি করে বাসা বাঁধছে। আর এর ফলে মৃত্যু হচ্ছে সেই সমস্ত রোগীদের। তাই করোনা চিকিৎসা করার পাশাপাশি যে রোগ নিয়ে সেই রোগীরা হাসপাতালে প্রবেশ করছেন, তাদের যাতে পরীক্ষা করা হয় এবং রোগীকে সুস্থ করানো হয়, তার জন্য বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে নির্দেশ দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!