এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় প্রার্থীতালিকা নিয়ে বড়সড় নির্দেশ, চাপ বাড়ল বহু গেরুয়া নেতার

বাংলায় প্রার্থীতালিকা নিয়ে বড়সড় নির্দেশ, চাপ বাড়ল বহু গেরুয়া নেতার



লোকসভা ভোটের নির্ঘন্ট প্রকাশিত হতেই তড়িঘড়ি করে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করে দিল শাসকদল। অথচ এখনো গেরুয়াশিবিরের প্রার্থী তালিকাই চূড়ান্ত হয়নি। তবে চলতি সপ্তাহেই বিজেপির তরফ থেকে প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হয়ে যেতে পারে বলেই মনে করা হচ্ছে।

বিজেপির সংসদীয় কমিটি ৪২ টি লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী একবারেই ঘোষণা না করে দফায় দফায় ঘোষণা করতে পারে বলেই খবর রয়েছে দলীয় সূত্রের। প্রার্থী তালিকায় বেশ কিছু নতুন মুখ থাকার সঙ্গে সঙ্গে রাজনৈতিক হেভিওয়েটরাও রয়েছেন। এলাকায় ভালো কাজের রেকর্ড খতিয়ে দেখে তবেই তাকে ভোটের টিকিট দিতে হবে বলেই বঙ্গ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

অর্থাৎ বিরোধীদের তরফ থেকে আসা দক্ষ সংগঠককে বিজেপি প্রার্থী করা নিয়ে দলের মধ্যে ক্ষোভ থাকলেও সেটাকে গুরুত্ব দেওয়া হবে না বলেই স্পষ্ট করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। শুধুমাত্র প্রার্থীর জেতার ক্ষমতার উপরই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে তা সে যেই দল থেকেই আসুক না কেন। দলের নীতি এবং আদর্শের সঙ্গে পরে মানিয়ে নিলেও সমস্যা নেই কোনো।

রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ সাফ জানিয়ে দিয়েছেন,আগে জিতে সরকার গঠন করতে হবে। এই লক্ষ্যই স্থির করে দিয়েছেন অমিত শাহ। পার্টির দরজা সকলেও জন্য খোলা রয়েছে বলেও জানিয়ে দিয়েছেন তিনি।লোকসভা ভোটের প্রার্থী বাছাই নিয়ে আলোচনার মধ্যে সম্প্রতি দিল্লিতে কৈলাস বিজয়বর্গীয় এবং মুকুল রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দিলেন বোলপুরের বহিষ্কৃত তৃণমূল সাংসদ অনুপম হাজরা-সহ বনগাঁর কংগ্রেস বিধায়ক দুলাল বর ও মালদহের হবিবপুরের সিপিএম বিধায়ক খগেন মুর্মু।

অনুপম হাজার বিজেপিতে আসতেন,এ গুঞ্জন আগেই শোনা গিয়েছেন। বিজেপিতে যোগ দিয়ে সেই জল্পনাই সত্যি করলেন তিনি। দল বিরোধী কাজের অভিযোগে বেশ কিছুদিন আগেই তৃণমূল থেকে ছাটাই করা হয়েছিল তাকে। এছাড়া দুলাল বরেও বিজেপিতে যোগ দেওয়া ছিল সময়ের অপেক্ষা। তবে সিপিএম বিধায়কের হঠাৎ করে বিজেপিতে যোগদানে যথেষ্ট ধাক্কা পেয়েছে লালশিবির। বনগাঁ লোকসভা কেন্দ্র হয়তো দাঁড়াতে পারেন দুলাল বর।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আবার শান্তনু ঠাকুরের ওই কেন্দ্রে প্রার্থী হতে পারেন। খগেন মুর্মুকে মালদহ উত্তর কেন্দ্রে প্রার্থী করে চমকে দিতে পারে বিজেপি। বিষ্ণুপুর কেন্দ্রে প্রার্থী করা হচ্ছে সৌমিত্র খাঁকে। সদ্য দলে যোগ দেওয়া মৌসুমি চট্টোপাধ্যায় এবং তৃণমূল থেকে আসা অন্য এক নেতাকেও প্রার্থী করার ব্যাপারে আলোচনা শুরু হয়েছে। তবে বিজিত আসন আসালসোল এবং দার্জিলিংয়ে প্রার্থী বদল হচ্ছে বলেই খবর রয়েছে।

বেশ কয়েকজন সেলিব্রিটিকেও এবার বিজেপির তরফ থেকে ভোটে দাঁড় করানো হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। এছাড়া প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন তিনজন রাজ্য সহ-সভাপতি,দু’জন রাজ্য সাধারণ সম্পাদক।প্রার্থী তালিকা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি বাংলায় দলীয় প্রচার নিয়েও দিল্লির বৈঠকে বাংলার নেতাদের সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ আলেচনা করেছেন অমিত শাহ।

সোমবারে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকে কৈলাস বিজয়বর্গীয়, অরবিন্দ মেনন, দিলীপ ঘোষ, রাহুল সিনহা, মুকুল রায় প্রমুখ নেতারা উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। ১১ এপ্রিল প্রথম দফায় ভোট শুরু হওয়ার আগেই বাংলায় আসতে চলেছেন অমিত শাহ। চার জায়গায় ভোটের প্রস্তুতি নিয়ে সভা করবেন বলেও জানা গিয়েছেন। এরপর ভোট প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার পর মোদী-শাহ জুটি গোটা রাজ্য জুড়ে প্রায় ২০ টি জনসভা করবেন বলেও খবর রয়েছে দলীয় সূত্রের।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!