এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার কি বাংলার রং গেরুয়া করতে বিশেষ দায়িত্ব পেতে চলেছেন তেজস্বী সূর্য? তীব্র জল্পনা শুরু

এবার কি বাংলার রং গেরুয়া করতে বিশেষ দায়িত্ব পেতে চলেছেন তেজস্বী সূর্য? তীব্র জল্পনা শুরু



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –আগামী 2021 এর বাংলার বিধানসভা নির্বাচন বিজেপির কাছে অন্যতম টার্গেট হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেনতেন প্রকারেন বাংলার ক্ষমতা দখল করার জন্য ইতিমধ্যেই ব্লু প্রিন্ট সাজাতে শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তবে বাংলায় ক্ষমতায় আসতে গেলে এবং তৃণমূল কংগ্রেসকে ক্ষমতাচ্যুত করতে গেলে গোটা প্রক্রিয়াটা যে অত সহজ নয় বিজেপির কাছে, তা ভালোই উপলব্ধি করছেন রাজ্য এবং বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বরা।

তাই এই পরিস্থিতিতে মূল সংগঠনকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি বাংলায় ক্ষমতায় আসতে এবার যুব এবং তরুণ শক্তির ওপর সবথেকে বেশি ভরসা করতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্ব। একাংশ বলছেন, ইতিমধ্যেই বিজেপির বাংলায় কেমন ফল হতে পারে, তা নিয়ে সমীক্ষা করেছে। যেখানে তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বেকারদের কর্মসংস্থান নিয়ে তরুণ প্রজন্মের ব্যাপক ক্ষোভ রয়েছে। তাই সেই ক্ষোভকে হাতিয়ার করেই তরুণদের ভোটব্যাঙ্ক শক্তিশালী করতে এখন সবথেকে বেশি জোর দিতে শুরু করেছে পদ্ম শিবির।

বৃহস্পতিবার রাজ্য বিজেপি যুব মোর্চার তরফ থেকে নবান্ন অভিযানের ডাক দেওয়া হয়েছিল। যাকে ঘিরে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সামনে থেকে দাঁড়িয়ে সেই কর্মসূচির নেতৃত্ব দিয়েছেন বিজেপি যুব মোর্চার সর্বভারতীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। আর তারপরেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে আক্রমণাত্মক মন্তব্য করতে দেখা গেছে তাকে। আর তেজস্বী সূর্যের মত গ্রহণযোগ্য যুব মুখ যেভাবে বাংলার মাটিতে এসে তৃণমূল সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে দিলেন, তাতে বিজেপি নেতৃত্ব যে যুবকদের উজ্জীবিত করতে তেজস্বী সূর্যকে আরও বেশি করে কাজে লাগাতে পারে, সেই বিষয়টি কার্যত নিশ্চিত হতে শুরু করেছে বিশেষজ্ঞদের কাছে।

একাংশ বলছেন, বর্তমানে বাংলায় বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি পদে রয়েছেন সৌমিত্র খাঁ‌। তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ তিনি। সেদিক থেকে বিভিন্ন জায়গায় সভা-সমিতির মধ্যে দিয়ে ও আন্দোলন করে তৃণমূল সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে দিতে তিনি অনেকটাই সক্ষম। তবে সেই জায়গা থেকে বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে ক্ষমতাচ্যুত করতে গেলে তেজস্বী সূর্যের মত গ্রহণযোগ্য মুখকে দরকার ভারতীয় জনতা পার্টির। আর তাই তৃণমূলের মত প্রবল প্রতাপশালী শক্তির বিরুদ্ধে যুব সমাজকে এককাট্টা করতে সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে থাকা নেতৃত্ব হিসেবে তেজস্বী সূর্যকে বিজেপি বাংলার জন্য বাড়তি দায়িত্ব দিতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর যদি সত্যি সত্যিই তেজস্বী সূর্য বাংলায় গেরুয়া ঝড় তুলতে যুবসমাজের মুখ হয়ে লড়াই করেন, তাহলে তা তৃণমূলের পক্ষে অত্যন্ত বিপদজনক হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। অনেকে বলছেন, এই তেজস্বী সূর্য দাপুটে ছাত্রনেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন। পরবর্তীতে গোটা ভারতবর্ষ জুড়ে যুবসমাজকে এককাট্টা করে বিজেপির পক্ষে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছিলেন তিনি। তাই আজকের বাংলায় নবান্ন অভিযানে সেই তেজস্বী সূর্য যেভাবে সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে থেকে নেতৃত্ব দিলেন, তা একপ্রকার অনবদ্য। তাই সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে তেজস্বী সূর্যের মত গ্রহণযোগ্য মুখে বিজেপি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘুম উড়িয়ে দিতে কাজে লাগাতে পারে বলেই মত বিশেষজ্ঞদের।

 

বিজেপির একাংশ বলছেন, তেজস্বী সূর্যকে যদি সত্যি সত্যিই ভারতীয় জনতা পার্টি বাংলার নির্বাচনে কাজে লাগায়, তাহলে বাংলার ছাত্র-যুব এবং নতুন প্রজন্মের ভোটারদের অনেকটাই বিজেপির পক্ষে আনা সহজ হবে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে ক্ষমতাচ্যুত করতে গেলে এই রকম হেভিওয়েট যুব মুখ ছাড়া লড়াই করা অত্যন্ত কঠিন। তাই তেজস্বী সূর্য যদি বাংলার নির্বাচনে আগে বাংলার জন্য কোনো বাড়তি দায়িত্ব পান, তাহলে তা বিজেপির পক্ষে অত্যন্ত লাভজনক হবে বলেই দাবি করছে একাংশ। তবে তৃণমূল অবশ্য এটাকে গুরুত্ব দিতে নারাজ। তাদের দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ওপর বাংলার মানুষের ভরসা আছে। আগামী 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনের তৃতীয় বারের জন্য মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সব মিলিয়ে এবার তেজস্বী সূর্য বাংলার নির্বাচনের জন্য বাড়তি কোনো দায়িত্ব পান কিনা এবং বাড়তি দায়িত্ব পেলে তিনি তৃণমূল সরকারের ঘুম উড়িয়ে দিতে কতটা সক্ষম হন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!