এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় জিনিস জমিয়ে রাখার অভ্যেস আছে? বাড়ি পরিষ্কার করার কিছু টিপস!

বিভিন্ন অপ্রয়োজনীয় জিনিস জমিয়ে রাখার অভ্যেস আছে? বাড়ি পরিষ্কার করার কিছু টিপস!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- পছন্দের জিনিসের প্রতি মায়া কাটাতে পারেন না অনেকেই। তাই বাইরে বেরিয়ে হাজারটা জিনিস কেনা যেরকম অভ্যাস থাকে মানুষের, তেমনই বিভিন্ন জিনিস কেনার পরে সেগুলি বাড়িতে জমিয়ে রাখতেও পছন্দ করেন বহু মানুষ। তবে সেই সমস্ত জিনিসপত্র কেবল আবর্জনা ছাড়া কোনভাবেই আপনার কাজের বস্তু হয়ে উঠতে পারে না। তাই অবিলম্বে সেই জিনিস গুলোর প্রতি মায়া কাটিয়ে নিজের বাড়িকে সাফসুতরো করে তোলাটাই ঠিক বলে মনে করেন অনেকে।

তবে আপনি যদি বুঝতে না পারেন পরিষ্কার করতে গিয়ে কোনটা রাখবেন আর কোনটা ফেলবেন! তাহলে দেখে নিতে পারেন এই টিপস গুলো

প্রথমত, বাইরে থেকে বেশিরভাগ বাড়িতেই খাবার আনিয়ে খাওয়া হয়। তবে কোন কোন সময় সেই খাবারের সঙ্গে দেওয়া বিভিন্ন মসলার প্যাকেট বা সসের প্যাকের খাওয়ার পরও বাড়িতেই থেকে যায়। তবে সেগুলো ফেলে দেওয়ার কথা বেমালুম ভুলে যান অনেকে। তাই আপনি যদি হন সেই সমস্ত মানুষদের দলে, তাহলে আজকেই জমিয়ে রাখা মসলার প্যাকেট ফেলে দিতে পারেন।

দ্বিতীয়ত, বাড়িতে কোন নতুন জিনিস কেনা হলে তার সঙ্গে বিভিন্ন শপিং স্টোর থেকে দেওয়া হয় বাক্স বা সোলার জিনিস। তবে সেগুলো অনেক সময় আমরা বাড়ির ছাদে বা স্টোররুমে জমিয়ে রাখতে পছন্দ করি, যা থেকে পরবর্তীকালে পোকামাকড়, মশা এমন অনেক কিছুর উপদ্রব হতে পারে বলে মনে করা হয়। তাই অবিলম্বে এমন জিনিস ফেলতে পারেন বলে মনে করেন অনেকে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তৃতীয়ত, সেইসঙ্গে খাবারের সঙ্গে দেওয়া প্লাস্টিকের চামচ, আইসক্রিমের কন্টেইনার, বিভিন্ন বিস্কুটের কন্টেইনার প্রভৃতি জিনিস আমরা জমিয়ে রাখতে পছন্দ করি। পরে কাজে লাগাবো মনে করলেও অনেক ক্ষেত্রেই সেগুলো কাজে লাগানো সম্ভব হয় না। তাই সেগুলো ফেলেই দিতে পারেন।

চতুর্থত, সেইসঙ্গে রান্না ঘরে থাকা বিভিন্ন কৌটোর ঢাকনা হারিয়ে গেলেও সেই কৌটোগুলো ফেলে দিতে মায়া লাগে অনেকেরই। হয়তো পরবর্তীকালে নিশ্চয়ই কোন কাজে লাগানো যাবে বা এর সমস্যমান কোন ঢাকনা খুঁজে পাওয়া যাবে এই আশায় সেগুলিকে জমিয়ে রাখেন অনেকেই তবে সেগুলো ফেলে দিলে উল্টে আপনার রান্নাঘরই আরো সুন্দর হয়ে উঠবে বলে আশা করা যায়।

পঞ্চমত, বর্তমান পরিস্থিতিতে অতিরিক্ত প্রয়োজন ছাড়া বাইরে বেরোনো উচিত নয় বলেই মনে করেন ডাক্তার চিকিৎসা প্রশাসন। বিভিন্ন মানুষ যারা একাধিক ওষুধের ওপর নির্ভর করে চলেন, তাদের নিত্যদিনের ওষুধের যোগান রাখতে অনেকেই এক্সট্রা অনেক ওষুধ কিনে বাড়িতে রেখে দেন। এর ফলে তা আপনার বাড়ি যেমন নোংরা করে, তেমনই অসাবধানতাবশত সেগুলো খেয়ে ফেললেও শারীরিক নানা সমস্যা দেখা যেতে পারে।

ষষ্ঠত, সেইসঙ্গে যে জিনিসগুলি জোড়ায় জোড়ায় ব্যবহার করা হয়, এমন জুতো, মোজার মত জিনিস, এগুলো একজোড়া হারিয়ে গেলে অন্যজোড়াকে কিন্তু অনেকেই সযত্নে রেখে দিতে পছন্দ করেন। তবে এর থেকে আপনার বাড়ির শোভা নষ্ট হওয়া ছাড়া অন্য কোন কাজ হতে পারে বলে মনে করা হয় না। তাই সেগুলিকে একান্ত কাজে লাগাতে না পারলে ফেলে দেওয়াটাই সংগত বলে মনে করা হয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!