এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > ব্যাংক অ্যাকাউন্টে হঠাৎ করেই বিশাল টাকার আগমন, হতচকিত এলাকাবাসী

ব্যাংক অ্যাকাউন্টে হঠাৎ করেই বিশাল টাকার আগমন, হতচকিত এলাকাবাসী



যদি কোনো এক সন্ধ্যেবেলা আপনার মোবাইলে মেসেজ আসে আপনার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে লোভনীয় নগদ ঢুকছে, আপনার অবস্থা কী হবে ? হয়ত রাতের ঘুমই উড়ে যাবে। ঠিক একই অবস্থা হয়েছে কোচবিহারের করোলা এলাকায়। হঠাৎই অবাক করার মতো ঘটনা। একের পর এক ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকতে হুরু করেছে রাশি রাশি টাকা। কারোর একাউন্টে 10000, কারো বা 30000 আবার কারোর 50000 বা তারও বেশি এক লক্ষ টাকা। ঠিক যেন লটারি কাটার মতন ব্যাপার। তবে কেউই কাটেনি লটারির টিকিট।

আচমকাই অ্যাকাউন্টে এত বিপুল টাকা ঢোকার ফলে এলাকাজুড়ে শুরু হয়েছে রীতিমতো চাঞ্চল্য। জানা গেছে, গত বুধবার রাতে এলাকার কয়েকজন বাসিন্দার অ্যাকাউন্টে চলে আসে হাজার হাজার টাকা। এব্যাপারে ব্যাংকের তরফ থেকে মোবাইলে মেসেজও আসে বলে জানা গেছে। শুধু তাই নয়, বাসিন্দারাও সেই টাকা তুলে নিচ্ছেন। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের নয়ারহাটের সাবেক ছিটমহল করোলা এলাকায়। কোচবিহারের করোলা এলাকা হচ্ছে ভারত বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকা। এখানে যাঁরা বাস করে, তাঁরা নিত্যদিন আর্থিক অনটনে ভোগেন।

এই অবস্থায় যখন তাঁদের অ্যাকাউন্টে একসাথে এতগুলো টাকা হুড়মুড়িয়ে ঢুকতে শুরু করে, তখন খুব স্বাভাবিকভাবেই এই গরিব মানুষগুলো হকচকিয়ে যান। বৃহস্পতিবার সকাল হওয়ার সাথে সাথেই ব্যাংকের সামনে এলাকার মানুষরা ভিড় করে আসেন। কেউ তাঁদের অ্যাকাউন্টের বাড়তি টাকা তুলে নেন, আবার কেউ পাসবই আপলোড করে দেখে নেন টাকা আদৌ ঢুকেছে কিনা। এলাকায় যেসব বাসিন্দার অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকেনি, তাঁরাও ব্যাংকের সামনে ভিড় করে প্রশ্ন তোলেন, কেন তাঁদের অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকেনি?

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

যদিও ব্যাংকের তরফ থেকে এই মুহূর্তে কোন সদুত্তর দেওয়া হয়নি টাকা কোথা থেকে আসছে এই প্রসঙ্গে। এই বিষয়ে খোঁজ করতে তৃণমূল নেতৃত্ব ও প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁদের তরফ থেকেও জানানো হয়, কোন প্রকল্পের হেতু এই মুহূর্তে সরকারের তরফ থেকে কোনো টাকা-পয়সা দেওয়া হয়নি। রহস্যজনকভাবে এলাকাবাসীর অ্যাকাউন্টে কোথা থেকে এত হাজার হাজার টাকা আসছে, সেই নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন। প্রথমে টাকা ঢোকার ব্যাপারটি গুজব হিসেবে উড়িয়ে দিলেও পরে এলাকাবাসীরা বুঝতে পারেন সত্যি সত্যিই তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকেছে।

কিন্তু কোথা থেকে এতগুলো টাকা এলো, তা নিয়ে ধন্দে পড়েছেন এলাকার অধিবাসীরা। অন্যদিকে, পুরসভা নির্বাচনের আগে এভাবে এলাকাবাসীর অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকায় রাজনৈতিক মহলেও তীব্র গুঞ্জন শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক মহলের একাংশের দাবি, অনলাইনের মাধ্যমে এলাকাবাসীর অ্যাকাউন্টে টাকা ঢোকানো হচ্ছে যা কোন নির্দিষ্ট কারণেই। আপাতত সামনেই পুরসভা নির্বাচন আর তারপর বিধানসভা নির্বাচন। সুতরাং টাকা ঢোকার অন্য কোনো কারণ এই মুহূর্তে ভোট ছাড়া আর কিছুই খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে দাবী বিরোধীদের। অন্যদিকে, এই ঘটনার পেছনে কোন রহস্য লুকিয়ে আছে কিনা তা খুঁজে বের করতে ইতিমধ্যে তদন্ত নেমেছে এলাকার পুলিশ। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!