এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বাংলায় ভরাডুবির পর এবার পাঞ্জাব, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ নিয়ে তীব্র সঙ্কটে গেরুয়া শিবির?

বাংলায় ভরাডুবির পর এবার পাঞ্জাব, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ নিয়ে তীব্র সঙ্কটে গেরুয়া শিবির?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয় এসেছে বিজেপির। ২০০ টি আসন জয়ের লক্ষ্যমাত্রা রাখলেও মাত্র ৭৭ টি আসন নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে বিজেপিকে। এদিকে নির্বাচনের পর থেকেই দলের অন্তর্দ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে। দলের সংগঠন নিয়েও বাড়ছে চিন্তা। এই পরিস্থিতিতে শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয় একাধিক রাজ্য নিয়ে আশঙ্কা বাড়ছে বিজেপির। যারমধ্যে রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাতও।

আগামী বছরে একাধিক রাজ্যে রয়েছে বিধানসভা নির্বাচন। এই রাজ্যগুলিকে নিয়ে বিজেপির আশঙ্কা ক্রমশ বাড়ছে। এই রাজ্যগুলির মধ্যে অন্যতম হলো উত্তর প্রদেশ, পাঞ্জাব, গুজরাত। পাঞ্জাবে বিজেপির একাধিক শরিক এনডিএ জোটের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে, বেশ কিছু ক্ষেত্রে মতান্তরের কারণে। যেমন পাঞ্জাবে বিজেপির দীর্ঘদিনের জোট শরিক দল অকালি দল, এনডিএ থেকে বেরিয়ে এসেছে। যার ফলে যথেষ্ট বিপাকে বিজেপি।

উত্তরপ্রদেশ নিয়েও যথেষ্ট চিন্তিত বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের পর এই রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচনে বেশ কয়েকটি বিজেপির শক্তিশালী গড়ে দলের পরাজয় এসেছে। তার উপরে উত্তরপ্রদেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বারবার বিরোধীদের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে সরকারকে। পূর্বে যে সমস্ত ছোট ছোট দল বিজেপির সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনে লড়াই করেছিল, সেই দল গুলি আগামী নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে লড়াই করবে কিনা? তা নিয়েও নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর নিজের রাজ্য গুজরাতেও বাড়ছে আশঙ্কা ও উদ্বেগ। করোনা পরিস্থিতিতে বারবার নানা অভিযোগের ধাক্কা সামলাতে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। আবার গত বিধানসভা নির্বাচনে ৮০ র বেশি আসন নিয়ে বিজেপির সঙ্গে শক্তপোক্ত লড়াই করেছিল কংগ্রেস। এবারে কংগ্রেসের ফলাফল যদি আরো ভালো হয়, তবে রাজ্যটি হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে বিজেপির, এমন আশঙ্কাও রয়েছে।

এই পরিস্থিতিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের বেপাত্তা হওয়া দলের উদ্বেগ আরো বাড়িয়ে দিচ্ছে। প্রসঙ্গত কিছু টুইট করা ছাড়া আর কোথাও দেখা মিলছে না কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর। বাংলায় ২০০ টি আসনের লক্ষ্যমাত্রা রেখে তা পূরণ করতে না পারার পর থেকেই কার্যত বেপাত্তা অমিত শাহ। যা নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। বাংলায় বিজেপির ভরাডুবি, দেশের সার্বিক করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতা, বারবার বিপাকে দিচ্ছে ঠেলে দিচ্ছে বিজেপিকে। পরবর্তী নানা নির্বাচন নিয়ে সংকট বাড়ছে বিজেপির।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!