এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় কি আর ফেরানো হবে না পরিযায়ী শ্রমিকদের? বিস্ফোরক তথ্য দিয়ে দাবী অধীর চৌধুরীর!

বাংলায় কি আর ফেরানো হবে না পরিযায়ী শ্রমিকদের? বিস্ফোরক তথ্য দিয়ে দাবী অধীর চৌধুরীর!



ফের বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরা নিয়ে বিস্ফোরক অধীর চৌধুরী। কোরোনার জেরে বাঙালির বাইরে আটকে রয়েছেন অসংখ্য মানুষ। তাদের নিজ রাজ্যে ফেরানোর জন্য ব্যাবস্থা করা হয়েছে ও হচ্ছে রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে। আর সেই মতো ভিন্ রাজ্যে থাকা পশ্চিমবঙ্গের শ্রমিকদের নিয়ে ইতিমধ্যে দুটি ট্রেন এসে পৌঁছেছে রাজ্যে।

মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং টুইট করে জানিয়েছেন যে, কেরল ও রাজস্থানের আজমেঢ় থেকে রওনা হয়ে ওই দুই ট্রেনে আড়াই হাজার পরিযায়ী শ্রমিক রাজ্যে ফিরেছেন।আর বাড়ি ফিরছেন শ্রমিকরা এতেই বাইরে থাকা শ্রমিকরা ও তাদের পরিবার আশার আলো দেখছেন , কিন্তু কিন্তু লোকসভায় কংগ্রেস নেতা তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরী বিস্ফোরক তথ্য তুলে ধরে মুখমন্ত্রীকে একপ্রকার চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন। সাথেই প্রশ্নও ছুড়ে দিয়েছেন এই সাংসদ।

এদিন অধীর চৌধুরী মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরাসরিই প্রশ্ন তোলেন যে,, বাকি শ্রমিকদের কী হবে? অধীরবাবু বলেন, ‘আমি রাত সাড়ে ৯ টার সময় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে কথা বলেছি। ওঁকে জিজ্ঞেস করেছি অন্য রাজ্যগুলি থেকে কি বাংলায় ট্রেন পাঠানো হচ্ছে? রেলমন্ত্রী জানিয়েছেন, দুটি ট্রেন বাংলা পৌঁছেছে। আর কোনও ট্রেন চেয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকার রেল মন্ত্রকের কাছে এখনও আবেদন জানায়নি। বুধবার সারাদিনে পশ্চিমবঙ্গ থেকে কোনও আবেদন আসেনি।’

সাথেই প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বলেন, ‘আমি বিনীত ভাবে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর কাছে জানতে চাইছি, রেলমন্ত্রী কি ভুল বলছেন? সত্যি কি আপনি আর ট্রেন চাননি? তা হলে বাংলার যে শ্রমিকরা ভিন্ রাজ্যে আটকে পড়ে রয়েছেন, যাঁরা বিভ্রান্ত, দিশাহীন, প্রবল অনিশ্চয়তার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন, তাঁদের কী হবে? তাঁরা কি এটাই ধরে নেবেন যে তাঁদের নিজের রাজ্য তাঁদের থেকে মুখ ঘুরিয়ে নিয়েছে!’

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তিনি আরো বলেন যে, ‘মুখ্যমন্ত্রী গতকাল বলেছেন, আড়াই হাজার শ্রমিককে ফেরানো হচ্ছে। কিন্তু দশ থেকে বারো লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের তুলনায় সেই সংখ্যাটা কত শতাংশ সরকার হিসাব করে দেখেছে কি!’

অনেকের মতে, এত লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিককে ফেরাতে সরকার ভয় পাচ্ছে, কেননা বাইরে থেকে এলে তাদের সবাইকে কোয়ারেন্টাইনে রাখতে হবে যার পরিকাঠামো এখানে নেই। তাছাড়া তা খরচ সাপেক্ষও বটে, এর থেকেও বড় কথা এদের থেকে সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কাও রয়েছে।ফলে যেখানে সংক্রমণ বেশি অর্থাৎ মহারাষ্ট্র, গুজরাত ও দিল্লি থেকে কাউকে ফেরানোর ঝুঁকি নিতে চাইছে না সরকার। প্রশ্ন উঠছে সেই কারণেই কি রাজ্য সরকার কোনো ট্রেন চাননি। নাকি রেল মন্ত্রক এ নিয়েও রাজ্যকে দোষারোপ করছে। উত্তর এখনো মেলেনি।

পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানো নিয়ে আগে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানান যে, ‘পর্যায়ক্রমে বাইরের রাজ্যগুলি থেকে শ্রমিক, ছাত্রছাত্রী এবং তীর্থযাত্রীদের রাজ্যে ফেরানোর কাজ চলবে। যাঁরা রাজ্যে ফিরছেন তাঁদের নির্দিষ্ট কিছু মেডিক্যাল প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। যথাযথ স্ক্রিনিং, টেস্টের পরেই তাঁদের বাড়িতে ফেরানো হবে।’ তবে রেল মন্ত্রকের দাবি সত্যি কিনা, বা অধীর চৌধুরী যে প্রশ্ন ছুড়েছেন তার কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি এখনো পর্যন্ত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!