এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ” বাম ও কংগ্রেস সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছে।” – বিস্ফোরক হেভিওয়েট বিজেপি নেতা

” বাম ও কংগ্রেস সাম্প্রদায়িক রাজনীতি করছে।” – বিস্ফোরক হেভিওয়েট বিজেপি নেতা



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – আজ বামেদের ব্রিগেড সমাবেশে যোগদান করলেন আব্বাস সিদ্দিকি। বিজেপি ও তৃণমূলকে একযোগে কটাক্ষ করে তিনি জানালেন যে, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি ও বিজেপির বি-টিম তৃণমূলকে বাংলা থেকে উৎখাত করতে হবে। মহম্মদ সেলিম জানালেন, বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। মোদি ও দিদির বিরুদ্ধে কথা বললেই, রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা দায়ের করা হয়। তৃণমূল ও বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। এরপরই রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য জানালেন যে, বাম ও কংগ্রেস সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতি করছে। অতীতে তারা যেভাবে সাম্প্রদায়িক শক্তিকে মদত দিয়েছিলো, এখনো সেটাই করছে। তৃণমূল মদত দিচ্ছে বামেদের।

আজ ব্রিগেড সভা থেকে আব্বাস সিদ্দিকি জানিয়েছেন যে, মানুষের মনোভাব বুঝতে পেরে সদিচ্ছা দেখাতে পেরেছেন বাম নেতৃত্ব। তাঁদের বেশিরভাগ দাবি মেনে নিয়েছেন বাম নেতৃত্ব। তিনি জানিয়েছেন, যেখানে বাম প্রার্থী দেবে সেখানে রক্ত দিয়েও তাদের জেতাবেন। মাতৃভূমিকে রক্ত দিয়েও স্বাধীন করবেন। মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে তিনি জানান যে, বাংলার স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নারীদের অধিকার কেড়ে নিয়েছেন তিনি।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তৃণমূল ও বিজেপিকে বিভিন্ন নেতৃত্বের একযোগে আক্রমণের পর এ বিষয়ে পাল্টা বক্তব্য রাখলেন রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য। এ প্রসঙ্গে তিনি জানালেন যে, সম্পূর্ণভাবে সাম্প্রদায়িকতার কাছে আত্মসমর্পণ করেছে বাম ও কংগ্রেস নেতৃত্ব। পশ্চিমবঙ্গের মানুষ তা দেখছেন। পশ্চিমবঙ্গের মানুষই উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেবেন। বিজেপি সাম্প্রদায়িক আর ভাইজানের রাজনীতি অসাম্প্রদায়িক রাজনীতি, ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতি কটাক্ষ করেছেন তিনি। আজকের ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ড থেকে কোন কোন ধর্মনিরপেক্ষ স্লোগান দেওয়া হয়েছে? প্রশ্ন করেছেন তিনি।

বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য জানালেন যে, তাঁরা কংগ্রেস বক্তাদের মধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য শুনেছেন। বিপিনচন্দ্র পালের বক্তব্য শুনেছেন। ১০ হাজার কংগ্রেস কর্মী খুন হওয়ার দাবি করেছেন যিনি, তাঁর মুখে ইনকিলাব জিন্দাবাদ শুনেছেন। কিন্তু একবারের জন্যও বন্দেমাতরম শব্দ উচ্চারিত হয়নি। সম্পূর্ণভাবে সাম্প্রদায়িকতার কাছে, ভাইজানের কাছে, মহম্মদ সেলিমের কাছে, তাদের এই নতুন বিন্যাসের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে শতাব্দী প্রাচীন দল কংগ্রেস। তিনি জানালেন যে, যারা দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গের মাটিতে ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতির কথা বলছেন, যারা জয় শ্রীরাম ধ্বনির মধ্যে সাম্প্রদায়িকতার গন্ধ খুঁজে পেয়েছেন, তাঁরা আত্মসমর্পণ করেছেন আজ।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!