এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > মোদিকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত প্রায় নিয়ে ফেলেছিলেন বাজপেয়ী, বিস্ফোরক বিজেপি নেতা

মোদিকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত প্রায় নিয়ে ফেলেছিলেন বাজপেয়ী, বিস্ফোরক বিজেপি নেতা



লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্রের মসনদ থেকে বিজেপিকে সরানোর জন্য যখন তৎপর হয়ে উঠেছে সমস্ত বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো, ঠিক তখনই এ যেন বিরোধীদের হাতে এক নতুন অস্ত্র তুলে দিলেন বিজেপির প্রাক্তন নেতা যশবন্ত সিনহা। বস্তুত, বিভিন্ন লোকসভা নির্বাচনে প্রচারে গিয়ে দেশের প্রয়াত প্রাক্তন বিজেপির প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারি বাজপেয়ির আদর্শের কথা তুলে ধরে প্রচারপর্বে ব্যস্ত থাকতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।

এমনকি বিরোধীদের অনেক কুৎসার জবাবে তার দলের পূর্বসূরী বাজপেয়ির কথা তুলে ধরে আক্রমণ শানাচ্ছেন তিনি। কিন্তু এবারে সেই নরেন্দ্র মোদীর অস্বস্তি বাড়িয়ে যে বাজপেয়ির নাম নিয়ে মোদি প্রচার করছেন, সেই বাজপেয়িই নাকি একসময় নরেন্দ্র মোদিকে দল থেকে বহিষ্কার করতে চেয়েছিলেন বলে দাবি করলেন একদা বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা।

প্রাক্তন বিজেপি নেতার দাবি, গত 2002 সালে গুজরাটের গোধরা কান্ডের পর মোদীর উপর ভীষণভাবে অসন্তুষ্ট হয়ে তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী। তবে সেই সময় মোদিকে দল থেকে বহিষ্কার করলে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে তিনি ইস্তফা দেবেন বলে জানিয়ে দিয়ে লালকৃষ্ণ আদবানী মোদীকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত থেকে বাজপেয়িকে আটকে দিয়েছিলেন বলেও দাবি করেছেন যশবন্ত সিনহা।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর এই ঘটনাটি তুলে ধরে বর্তমানে নরেন্দ্র মোদি বিজেপির সমস্ত সাফল্যের পেছনে লালকৃষ্ণ আদবানিকে বিন্দুমাত্র সম্মান না দিয়ে নিজে এবং অমিত শাহ সমস্ত কৃতিত্বের ভাগিদার বলে প্রচার করতে শুরু করেছেন বলেও‌ অভিযোগ তার। আর প্রাক্তন বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহার এহেন মন্তব্যের পরেই এবার তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে জাতীয় রাজনীতিতে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রাক্তন বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহার এই মন্তব্যের সত্যতা নিয়ে নানা মহলে নানা প্রশ্ন থাকলেও ভোট মরশুমে বিরোধীরা এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করে ভোট বৈতরণী পার হতে মরিয়া চেষ্টা চালাবেন বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!