এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > হাজার হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ হঠাৎ অন্ধকারে, আতঙ্কে ছাত্রছাত্রীরা

হাজার হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ হঠাৎ অন্ধকারে, আতঙ্কে ছাত্রছাত্রীরা



আতঙ্ক ছাত্র-ছাত্রী মহলে! কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার ছাত্রছাত্রীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠে গেলো। গত প্রায় দশ বছর ধরে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ডিসট্যান্স এডুকেশন বিভাগ চালু রয়েছে এবং সেখানে বাংলা, ইতিহাস এবং ইংরেজি পড়ানো হচ্ছে। কোনো অসুবিধা হয়নি এতদিন, তবে এবার নিয়মের গেরোতে এই বিভাগের অনুমোদন নিয়েই তৈরী হয়েছে এই মরণ বাঁচন সমস্যা!
বিষয়টা ঠিক কি? এতদিন ডিসট্যান্স এডুকেশন কাউন্সিলের মাধ্যমে এই বিভাগের অনুমোদন নেওয়া হত। কিন্তু এই বছর থেকে এই বিভাগ ইউজিসির অন্তর্ভুক্ত হয়, ফলে অনুমোদনও তাদের থেকে নেওয়ার আইন হয়। গত ৩১ অক্টোবর ইউজিসির পক্ষ থেকে অনলাইনে আবেদন করার শেষ দিন ধার্য করা হয়েছিল। কিন্তু, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে বিষয়ের অনুমোদন চেয়ে কোনও আবেদন করা হয়নি। ফলে উঠছে নানা প্রশ্ন কেন বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন চেয়ে কোনও আবেদন করে নি বা অনুমোদন না থাকলে কী করে ডিসট্যান্স এডুকেশন বিভাগে ভর্তি হওয়া ছাত্রছাত্রীরা পড়াশুনা করবেন, বা তাদের ভবিষ্যৎই বা কি? যদিও বিশ্ববিদ্যালয় এই নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ। তবে যাই হোক এর ফলে স্নাতকোত্তর কোর্সে পার্ট ওয়ান ও পার্ট টু মিলিয়ে প্রায় ১৬ হাজার ছাত্রছাত্রীর ভবিষ্যত অনিশ্চিত হয়ে পরল একথা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর তাই নিয়ে আতঙ্ক-হতাশা ক্রমশ গ্রাস করছে ওই ছাত্র-ছাত্রীদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!