এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বাবুল সুপ্রিয়র জমি কাড়তে আসরে তৃণমূল সাংসদ, শিল্প শহরের লড়াই জমে উঠছে

বাবুল সুপ্রিয়র জমি কাড়তে আসরে তৃণমূল সাংসদ, শিল্প শহরের লড়াই জমে উঠছে



শনিবার বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ মমতাজ সঙ্ঘমিতা, অ্যালয় স্টিল প্ল্যান্টের (এএসপি) কর্মী, আধিকারিকবৃন্দ সহ এলাকার ৩ নম্বর ব্লকের তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি বিপ্লব বিশ্বাস এর সঙ্গে বৈঠক করলেন। কারখানার কৌশলগত বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবিতে কেন্দ্রীয় সরকারের উপরে চাপ বাড়ানো হবে এই কথা জানালেন সাংসদ। ১৯৭৩ সালে তৈরি হওয়া এই কারখানা লাগাতার লোকসানে চলছে জানিয়ে কারখানার কৌশলগত বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি স্টিল অথরিটি অফ ইন্ডিয়া লিমিটেড (সেল) এএসপি-র কৌশলগত বিলগ্নিকরণের জন্য গ্লোবাল টেন্ডার ডাকার জন্য বিজ্ঞাপন দেয়। আইএনটিটিইউসি বাদে বাকি সংগঠনগুলি বিলগ্নিকরণ রুখতে ‘এএসপি বাঁচাও, দুর্গাপুর বাঁচাও’ মঞ্চ গড়ে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ের সঙ্গেও দেখা ও করেছেন মঞ্চের নেতারা। গত, ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে কারখানার গেটে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি নিয়েছে তৃণমূলও। তৃণমূল কংগ্রেস দলের কার্যকরী সভাপতি উত্তম মুখোপাধ্যায় অভিযোগ করে বললেন, ”কেন্দ্রীয় সরকার তিনটি ইস্পাত কারখানার বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। কিন্তু ভদ্রাবতী ও সালেমের কারখানা বাদ দিয়ে শুধু এএসপি-র বিলগ্নিকরণ হচ্ছে।” সম্প্রতি তৃণমূলের সাংসদরা ইস্পাত মন্ত্রী চৌধুরী বীরেন্দ্র সিংহের সঙ্গে দেখা করে স্মারকলিপিও দিয়েছেন। এদিন সাংসদ বললেন, ”লোকসভা ও রাজ্যসভায় বিষয়টি তোলা হবে। বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে যাব।”
প্রসঙ্গত কয়েকদিন আগেই একে শ্রীখন্ডী খাড়া করে আসরে নেমেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। নেতাদের সাথে এই একই বিষয়ে কথা বলে ব্যাপারটি মেটানোর চেষ্টা করেছিলেন। এবার সেই একই পথে হাঁটলো তৃণমূল। রাজনৈতিকমহলের মতে তৃণমূল কোনো ভাবেই বিজেপিকে অ্যাডভান্টেজ দিতে চাইছে না আর তাই আসরে নেমে পড়েছে তৃণমূল।

আপনার মতামত জানান -

Top
Facebook Friends
error: Content is protected !!