এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মন্ত্রিত্ব যাওয়ার পর বড় বার্তা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়, বাড়ছে জল্পনা!

মন্ত্রিত্ব যাওয়ার পর বড় বার্তা দিলেন বাবুল সুপ্রিয়, বাড়ছে জল্পনা!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট- কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের পক্ষ থেকে তাকে মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরেই আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে নিয়ে জল্পনা ক্রমশ দীর্ঘায়িত হতে শুরু করে। তার নানা ফেসবুক পোস্ট থেকে শুরু করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং মুকুল রায় প্রোফাইল ফলো করাকে নিয়ে তিনি কি তৃণমূল মুখো হচ্ছেন, তা নিয়ে নানা মহলে প্রশ্ন তৈরি হয়। যদিও বা সেই সমস্ত জল্পনাতে কান না দেওয়ার কথা বলেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়।

তবুও সেভাবে দলের কোনো কর্মসূচিতে তার না থাকা থেকে শুরু করে নানা ধরনের ফেসবুক পোস্ট এবং মন্ত্রিত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার পর তিনি যে কিছুটা হলেও অভিমানী, সেই ব্যাপারটি স্পষ্ট হয়ে যায় বিশেষজ্ঞদের কাছে। তবে অবশেষে এই সমস্ত জল্পনাকে দূরে সরিয়ে রেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ। যেখানে সাংসদ থাকার কারণে তিনি তার এম পি ল্যাডের টাকা পেয়ে এবার কাজ শুরু করতে চলেছেন বলে জানিয়ে দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। স্বাভাবিকভাবেই তাকে মন্ত্রিত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর তিনি অভিমানী বলে দাবি করতে শুরু করেছিলেন একাংশ। তবে তার এই উদ্যোগের মধ্যে দিয়ে পরিষ্কার, তিনি সাংসদ হিসেবেই তার কাজ করে যাবেন।

 

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

 

সূত্রের খবর, এদিন একটি ট্যুইট করেন আসানসোলের বিজেপি সাংসদ তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়। যেখানে তিনি লেখেন, “করোনা পরিস্থিতিতে অনিবার্য কারণবশত এমপি ল্যাড ফান্ডের কাজ এক বছর বন্ধ থাকার পর আবার তা শুরু হতে চলেছে।” আর বাবুল সুপ্রিয়র এই বার্তার পর কিছুটা হলেও স্বস্তি পেল বিজেপি নেতা কর্মীরা। কেননা মন্ত্রিত্ব থেকে তাকে সরিয়ে দেওয়ার পর থেকেই তার রাজনৈতিক অভিমুখ এবং গতিপ্রকৃতি নিয়ে জল্পনা বাড়তে শুরু করেছিল। তিনি বড় কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেন বলে দাবি করতে শুরু করেছিল একাংশ। তবে মন্ত্রীপদ চলে গেলেও যে বাবুল সুপ্রিয় সাংসদ হিসেবে নিজের লোকসভা কেন্দ্রের মানুষের পাশে থাকবেন এবং কাজ শুরু করে দিতে চাইছেন, তা তার এই ট্যুইটের মধ্যে দিয়েই পরিষ্কার হয়ে গেল বলেই দাবি করছেন একাংশ।

 

পর্যবেক্ষকদের মতে, 2014 সালে একমাত্র বাবুল সুপ্রিয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় বাংলা থেকে জায়গা পেয়েছিলেন। পরবর্তীতে 2019 সালের 18 জন সাংসদ জয়লাভ করলেও, তার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় যোগদান নিশ্চিত হয়েছিল। তবে সম্প্রতি তাকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। আর তারপর থেকেই তাকে নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়। কিন্তু এবার সাংসদ হিসেবে যে তিনি উন্নয়নমূলক কাজে অংশগ্রহণ করবেন, তা পরিষ্কার করে দিলেন বাবুল সুপ্রিয়। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!