এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > চাপ বাড়ছে বাবুল সুপ্রিয়র উপর, নিজের গড়েই পুনর্বাসনের দাবিতে কালো পতাকা!

চাপ বাড়ছে বাবুল সুপ্রিয়র উপর, নিজের গড়েই পুনর্বাসনের দাবিতে কালো পতাকা!



নিজের এলাকাতেই বিক্ষোভের সম্মুখীন হলেন আসানসোলের সাংসদ সদস্য তথা বিজেপির হেভিওয়েট নেতা বাবুল সুপ্রিয়। কালো পতাকা তুলে ‘গো ব্যাক’ শ্লোগানের ঝড় তুলে দেন বিক্ষোভকারীরা সাংসদ সদস্যকে ঘিরে। প্রথমে তাঁদের স্থান থেকে সরানো কঠিন হচ্ছিল,কিন্তু বাবুল সুপ্রিয় পরে গাড়ি থেকে নেমে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে কথা বললে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এদিন কুমারপুরের একটি রেলওয়ে ওভারব্রিজ তৈরির জন্য শিলান্যাস করতে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। রেল এবং সেইল যৌথ উদ্যোগে এই ওভারব্রিজ তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এদিন অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথেই বিক্ষোভকারীরা পথ অবরোধ করেন এলাকার সাংসদের। অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে কিছুটা দূরে ৪০-৫০ জন মহিলা এবং কয়েকজন পুরুষ হাতে কালো পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ করতে থাকেন।

তাঁদের দাবী,যে স্থানে রেলওয়ে ওভারব্রীজটি হচ্ছে সেখানেই তাঁদের দোকানপাট রয়েছে। ওভারব্রীজ তৈরি করলে তাঁদের আর্থিক ক্ষতি হবে। এ ক্ষতি কিছুতেই স্বীকার করতে রাজি নন তাঁরা। তাই অবিলম্বে তাঁদের জমি ফিরিয়ে দিতে হবে। স্থানীয়রা অভিযোগে আরো জানান,এর আগেও এই ওভারব্রীজ তৈরীর জন্য উদ্যোগ নিতে দেখা গেছে রেলদপ্তরকে। তাঁরা ৩০ কোটি টাকার বাজেট নির্ধারিত হয়েছিল এই ওভারব্রীজের জন্য। সেবার তাঁরা ওভারব্রীজটি তৈরি করতে পারেনি। স্থানীয়দের অভিযোগের সঙ্গে গলা মেলাতে এগিয়ে আসে  এলাকার তৃণমূল নেতা শঙ্কর চক্রবর্তী। তিনিও প্রশ্ন তোলেন,পুর্নবাসন না দিলে এতোগুলো লোক জীবনধারণ করবে কীভাবে? অবিলম্বে এলাকাবাসীদের জায়গা ফিরিয়ে দেওয়ার দাবী করেন তিনি।

প্রসঙ্গত,৫০ কোটি টাকা খরচ করে রেল এবং সেইল যৌথ উদ্যোগে এই ওভারব্রীজটি তৈরি করবে এমনটাই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। দীর্ঘদিন ধরেই এই ব্রীজ তৈরির দাবী জানিয়ে আসছিল এলাকাবাসীরা। আসানসোল-কুলটি যাওয়ার ব্যস্ততম সড়কপথের উপর থেকে রেললাইন চলে যাওয়ার কারণে সমস্যায় পড়ছিল স্থানীয়রা। কারণ এই রেললাইন দিয়েউ ইস্কোর বহু মালগাড়ি যাতায়াত করে। সেজন্যে সড়কপথের যাতায়াত ব্যাহত হয়। তাই ওভারব্রীজটি তৈরি হলো সড়কপথের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যাবে। মালগাড়ি যাতায়াতের জন্য বাস,লরি বা অন্যান্য যানবহনকে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হবে না। এমনটাই জানালেন বাবুল সুপ্রিয়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের এটাও জানালেন,ব্রীজের নীচেই অনেক জায়গা থাকবে যেখানে তাঁরা নির্দ্বিধায় ব্যবসা করতে পারবে। কোনো সমস্যা হবে না। তাছাড়া হকার সমস্যা সমাধান রাজ্যসরকারের কাজ,এমনটাই জানালেন তিনি। উল্লেখ্য,এদিনের অনুষ্ঠান মঞ্চে এলাকার সাংসদ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আসানসোল ডিভিশনের ডিআরএসম প্রশান্ত কুমার মিশ্য সহ অন্যান্য বিশিষ্ট আধিকারিকরা। প্রতিকূল পরিস্থিতিতে কড়া নিরাপত্তার মধ্যেই এদিনের শিলান্যাসের অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা হয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!