এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > অতিমারীর বাজারে কাজ হারাবার আশঙ্কা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার প্রায় ৩০০জন কর্মীর

অতিমারীর বাজারে কাজ হারাবার আশঙ্কা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার প্রায় ৩০০জন কর্মীর



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – অতিমারীর বাজারে কাজ হারাবার আশঙ্কায় শঙ্কিত সেলের কাঁচামাল সরবরাহকারী আরএমডি বিভাগে কর্মরত প্রায় ৩০০ জন কর্মীর। জানা যাচ্ছে, রাষ্ট্রায়ত্ত স্টিল অথরিটি অফ ইন্ডিয়া বা সেলের কাঁচামাল সরবরাহ কারী বিভাগ র মেটেরিয়াল ডিপার্টমেন্ট বা আরএমডি বন্ধ করে দেবার কথা চলছে। এই বিভাগে কাজ করেন প্রায় ৩০০ জন কর্মী। এটি অবস্থিত রয়েছে কলকাতায়। এর আওতায় রয়েছে ১০ টি লৌহ আকরিক খনি।

সেলের কারখানায় কাঁচামাল সরবরাহ করে থাকে আরএমডি। এই বিভাগ কলকাতায় অবস্থিত। পূর্বাঞ্চলের একাধিক লৌহ ইস্পাত কারখানায় কাঁচামাল সরবরাহ করে এই বিভাগ। পশ্চিমবঙ্গ, ঝাড়খন্ড, উড়িষ্যার বহু লৌহ ইস্পাত কারখানায় লৌহ আকরিক সহ একাধিক কাঁচামাল সরবরাহ করার দায়িত্বে রয়েছে এই সংস্থা। এর আওতায় রয়েছে ১০ টি লৌহ আকরিক খনি। এবার এটি তুলে দিয়ে এর নিয়ন্ত্রণে থাকা খনিগুলিকে বোকারো, রাউরকেল্লা কারখানার সঙ্গে সরাসরি যুক্ত করে দেয়া হবে।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু সমস্যা বেধেছে পশ্চিমবঙ্গের দুই রাষ্ট্রায়ত্ত লৌহ ইস্পাত সংস্থা দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্ট ও ইসকোকে নিয়ে। কারণ এ এগুলির সঙ্গে কোন আকরিক খনিকে যুক্ত করার পরিকল্পনা নেই। তাই, প্রয়োজনীয় কাঁচামাল পেতে তীব্র সমস্যায় পড়বে এই দুই রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা। বাজার থেকে অধিক মূল্যে যদি কাঁচামাল কিনতে হয়। তবে যা খরচ পড়বে, তাতে তাদের লাভের মুখ দেখার সম্ভবনা কম। আবার এরফলে কাজ হারাবেন ৩০০ জন কর্মী।

এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রায়ত্ত স্টিল অথরিটি অফ ইন্ডিয়ার জনৈক আধিকারিক জানান যে, সম্প্রতি খোলাবাজারে লৌহ আকরিকের যে দাম রয়েছে, তার চেয়ে প্রায় ৫ গুণ কম দামে আরএমডির কাছ থেকে কাঁচামাল পেয়ে থাকে লৌহ ইস্পাত কারখানাগুলি। কারণ, নিজের খনি থেকে আরএমডি নিজেই কাঁচামাল উত্তোলন করে। তার সঙ্গে সংমিশ্রণ করে সমান মানের লৌহ আকরিক সরবরাহ করে থাকে। এজন্যই দাম কম পড়ে। এই বিভাগ বন্ধ হয়ে গেলে পূর্বাঞ্চলের অন্যান্য কারখানার হয়তো তেমন অসুবিধা হবে না। কারণ তাদের কাছে থাকবে খনি। কিন্তু সমস্যা বাড়বে ডিএসপি, ইসকোকে নিয়ে।

এভাবে, অতিমারীর বাজারে আরএমডি তুলে দিলে একদিকে যেমন কর্মহারা হবেন বহু মানুষ, যেমনই কাঁচামালের অভাবে প্রবল সমস্যায় পড়বে ডিএসপি, ইসকো। কারণ, এদের সঙ্গে কোন খনিকে যুক্ত না করার কারণে বাজারি মূল্যের চেয়ে বহুমূল্য ব্যায় করে কিনতে হবে কাঁচামাল। উৎপাদন ব্যয় বেড়ে যাওয়ার কারণে লাভের মুখ দেখার সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যাবে বলে, বিশেষজ্ঞদের অভিমত।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!