এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিধানসভায় ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে গেরুয়া জোট এগিয়ে থাকলেও, তৃতীয় শক্তির উত্থানই কি সব বদলে দেবে?

বিধানসভায় ক্ষমতা দখলের লড়াইয়ে গেরুয়া জোট এগিয়ে থাকলেও, তৃতীয় শক্তির উত্থানই কি সব বদলে দেবে?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –একজন ক্রিকেটার হতে চেয়েছিলেন। অন্যজন অভিনেতা। তবে প্রথম পছন্দের পেশায় দুজনেই ব্যর্থ হয়ে শেষ পর্যন্ত যোগ দিয়েছিলেন রাজনীতিতে। বর্তমান রাজনীতিতে এই দুজন ব্যক্তিকে নিয়ে সবথেকে বেশি চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। যার মধ্যে একজন তেজস্বী যাদব এবং অন্যজন চিরাগ পাসোয়ান। জানা গেছে, ঘটনাচক্রে দুজনেই বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের শত্রু হিসেবে পরিচিত।

বর্তমানে বিহারের শাসক দলের ওপর চরম পরিমাণের চাপ বাড়াতে শুরু করেছে তেজস্বী যাদব। তবে বাবা রামবিলাস পাশওয়ানের মৃত্যুর পর নিতীশ কুমারের উপর চাপ বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করেছেন তাঁর পুত্র চিরাগ পাশওয়ান। স্বাভাবিক ভাবেই এই দুই শক্তির বিরোধিতায় কিছুটা হলেও হিমশিম খেতে হচ্ছে নীতীশ কুমারের দলকে। যেভাবে চিরাগ পাসওয়ান নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন, তাতে অনেকেই হতবাক।

এদিন রসিক পাসওয়ান নামে এক কৃষক বলেন, “রামবিলাসের মৃত্যুতে পাশওয়ান সমাজের মাথা থেকে ছাতা সরে গিয়েছিল ভেবেছিলাম। কিন্তু চিরাগ যে পরিণতিবোধ দেখাচ্ছেন, তাতে পাসওয়ান সমাজ নতুন নেতা পেয়ে গিয়েছে।” একাংশ বলছেন, চিরাগ পাসওয়ান ভাবমূর্তির প্রশ্নে নিজেকে অনেকটাই উচ্চতায় নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন। তবে সেদিক থেকে তেজস্বী যাদব এই ভাবমূর্তি নিয়ে কিছুটা হলেও সমস্যায় রয়েছেন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন এই প্রসঙ্গে স্থানীয় এক চায়ের দোকানদার প্রকাশ যাদব বলেন, “তেজস্বী আমাদের জাতির প্রতিনিধি। ওকে জেতানো আমাদের কর্তব্য। একমাত্র ওই ফেরাতে পারে আমাদের রাজত্ব।” তবে তেজস্বী যাদবকে পাল্টা প্রতিনিয়ত সভার মধ্যে দিয়ে আক্রমণ করছেন নিতীশ কুমার এবং তার দলের নেতারা। যার পাল্টা জবাব দিয়েছেন আরজেডি নেতা শিবানন্দ তিওয়ারি। এদিন তিনি বলেন, “অতীত ছেড়ে নীতিশ বরং বলুন, গত 15 বছরে তিনি কি করেছেন! কিছুই যে করেননি, তা বুঝতে পেরে এখন অতীতকে আঁকড়ে ধরতে চাইছেন। কিন্তু লিখে রাখুন, লোকে এবার পরিবর্তন চাইছে।”

বিশ্লেষকদের একাংশ বলছেন, লালুপ্রসাদ যাদবের অবর্তমানে তার পুত্র এখন দলের হাল ধরতে শুরু করেছেন। বিভিন্ন সভা সমিতিতে নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন তারা। একইভাবে নীতীশ কুমারের দলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে রীতিমতো সুর চওড়া করছেন রামবিলাস পাশওয়ানের পুত্র চিরাগ পাসওয়ান। আর এই দুই তরুণ যেভাবে নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে শুরু করেছেন, তাতে এবারের বিধানসভা নির্বাচন জেডিইউয়ের পক্ষে অত্যন্ত চাপের বলেই মনে করছে একাংশ। যদি তৃতীয় শক্তি হিসেবে পাশওয়ান পরিবার এবং যাদব পরিবার এক হয়ে যায়, তাহলে নীতীশ কুমারের পক্ষে ক্ষমতায় ফেরা কার্যত প্রশ্নের মুখে পড়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!