এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > অরূপবাবুর পদ পেতে পারেন এদের মধ্যে কেউ শুরু জল্পনা

অরূপবাবুর পদ পেতে পারেন এদের মধ্যে কেউ শুরু জল্পনা



আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে বড় চমক দিলো রাজ্য নির্বাচন কমিশন । সদ্য প্রকাশিত হয়েছে ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের সংরক্ষণ তালিকা। তালিকাসূত্রে প্রাপ্ত খবর অনুযাই জেলা পরিষদের সভাধিপতির আসনটি এখন থেকে তফশিলি উপজাতি সম্প্রদায়ের জন্য সংরক্ষিত করা হয়েছে । আর এই তালিকা কে মান্যতা দিতেই গত পাঁচ বছরের বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি পদএর ভারপ্রাপ্ত তৃণমূলের অরূপ চক্রবর্তী অবশেষে গদিচ্যুত হয়ে পরলেন। এখনও তৃনমূল কংগ্রেস বা প্রাক্তন বাঁকুড়া জেলা পরিষদের সভাধিপতি অরূপ বাবুর মারফত ঐ জেলা পরিষদের সভাধিপতি পদের জন্যে মনোনীত সম্ভাব্য নাম কোনো নাম জানা যায়নি।তবে কানা-ঘুষো শোনা যাচ্ছে যে ওই পদে সম্ভাব্য দুই নাম হিসাবে অনুমান করা যায় ঐ জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি বিভাবতী টুডু এবং রানীবাঁধের বিধায়ক জ্যোৎস্না মাণ্ডি। বিভাবতী দেবী একজন প্রাক্তন তৃণমূল পার্টি কর্মী।তিনি ১৯৯৮ থেকে জেলা পরিষদের সদস্যা। রাজ্যের বাম শাসন কালে তিনি জেলা পরিষদের বিরোধী নেত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর ২০১৩ থেকে এখনও পর্যন্ত সহ সভাধিপতি পদে আসীন । আরেক পদপ্রার্থী জ্যোৎস্না মাণ্ডি তুলনায় অভিজ্ঞতার দিক থেকে বিভাবতী দেবী অনেক এগিয়ে ।অন্যদিকে মিশুকে স্বভাবের নেত্রী জ্যোৎস্না মাণ্ডি ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে সিপিএম নেত্রী,একদা মন্ত্রী দেবলীনা হেমব্রমকে হারিয়ে ছিলেন।তাই দুজনেই সান গুরুত্ব পাচ্ছেন এদিকে কে এগিয়ে আছেন এই নিয়েও মুখ খোলেননি কেউ। আর তাছাড়া এই পদ হারিয়ে অন্য বড় কি পদ পেতে পারেন তা নিয়েও মুখ খোলেননি অরূপবাবু। অবশ্য নেত্রী বা দল কোনো ঘোষণা এখনই করেনি সবটাই জল্পনা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!