এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > বাংলা সবদিক থেকে এক নম্বর হওয়ার দিকে এগিয়ে চলেছে, দাবি মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের

বাংলা সবদিক থেকে এক নম্বর হওয়ার দিকে এগিয়ে চলেছে, দাবি মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের



গত লোকসভা ভোটে রাজ্যজুড়ে প্রবল ঘাসফুল ঝড়ের মাঝেও ছন্দপতন হয়েছিল আসানসোলে। এখানে সব হিসেবে উল্টে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দোলা সেনকে হারিয়ে দিয়ে জয়ী হন বিজেপির বাবুল সুপ্রিয়, পরে কেন্দ্রে মন্ত্রীও হন তিনি। আর তাই আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে আসানসোল পুনরুদ্ধার রাজ্যের শাসকদলের পাখির চোখ, আর উন্নয়নের মন্ত্রেই সেই কাঙ্খিত লক্ষ্য পূরণে মরিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। আর তাই গতকাল রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে গোটা আসানসোল জুড়ে প্রায় ২৫০ কোটি টাকার প্রকল্পের শিলান্যাস করেন। পরে বিকেলে আসানসোলে দলের জেলা পার্টি অফিসের সামনে একটি সভা থেকে তিনি রাজ্যের উন্নয়নের খতিয়ান তুলে ধরার পাশাপাশি তীব্র আক্রমন করেন বাম ও বিজেপিকে একযোগে। তিনি বলেন –

১. কেন্দ্রীয় সরকার বাংলাকে ভাতে মারার হাজার চেষ্টা করলেও কিছু করতে পারবে না
২. সিপিএম ভেবেছিল, ঋণে বাংলাকে জর্জরিত করে গেলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতা ছেড়ে চলে যাবেন, তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি
৩. বাংলা সবদিক থেকে এক নম্বর হওয়ার দিকে এগিয়ে চলেছে
৪. কেন্দ্রের বিজেপিও বাংলাকে ভাতে মারার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, কিন্তু তারা জানে না এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর নাম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়
৫. হাজার চেষ্টা করলেও তাঁকে দমানো যাবে না
৬. তিনি সর্বদা গরিব মানুষের পাশে থাকেন, তাঁদের হয়ে কাজ করেন, বাংলায় নারীশক্তির জয়জয়কার হয়েছে তাঁর জন্য
৭. বাংলায় উন্নয়নের জোয়ার চলছে
৮. সারা দেশের মধ্যে শুধু এরাজ্যের মানুষই বিনামূল্যে চিকিৎসা পান
৯. বিজেপি ১৯ টি রাজ্যে ক্ষমতায় আছে। কিন্তু, কোথাও সেই সুবিধা দেওয়া হয় না
১০. এরাজ্যের মেয়েরাও স্বনির্ভর হয়ে উঠেছে
১১. একজন কথায় কথায় আচ্ছে দিনের কথা বলেন, কিন্তু আপনারা আচ্ছে দিনের কোনও নমুনা দেখতে পাচ্ছেন?
১২. বলেছিল, প্রতিবছর ২ লক্ষ বেকার যুবক যুবতীকে চাকরি দেওয়া হবে, কিন্তু কেউই চাকরি পায়নি
১৩. আমি বলব, এখানে গান গেয়ে যিনি সংসদ সদস্য হয়েছেন তাঁর কাছে সেসবের কৈফিয়ত চান
১৪. আপনাদের কাছে অনুরোধ করব, আগামীদিনে গান শুনে নয়, কাজ দেখে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করুন
১৫. আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এরাজ্যের বেকার যুবক যুবতীদের কাজ জুগিয়েছেন, বাংলাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য তিনি দিনরাত পরিশ্রম করে চলছেন
১৬. ৩৪ বছরে শুধু দলবাজি হয়েছে, মানুষের উপকার হয়নি
১৭. রাজ্যে গণতন্ত্র বলে কিছু ছিল না
১৮. কোনও কাজই তারা করেনি
১৯. শুধু রাজনীতি করেছে
২০. আমাদের মুখ্যমন্ত্রী বাংলাকে নতুন দিশা দেখাচ্ছেন

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!