এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > ব্যারাকপুরের নির্বাচনের আগে হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের বাড়িতে অর্জুন সিং, বাড়ছে জল্পনা

ব্যারাকপুরের নির্বাচনের আগে হেভিওয়েট তৃণমূল বিধায়কের বাড়িতে অর্জুন সিং, বাড়ছে জল্পনা



মুকুল রায়ের পর অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগ দেবার পর তিনিও দাবি করেছেন যে অনেক নেতা নেত্রীই তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে আসবে। আর সেই মতো দল ভাঙানোর কাজে নেমে পড়েছেন তিনি। নিজের গড়ে তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের বিজেপিতে আনার পাশাপাশি তৃণমূল বিধায়ক তথা অর্জুন সিং এর নিকট আত্মীয় তথা তৃণমূল বিধায়ক সুনীল সিং এর ছেলে আদিত্য সিংকে সদ্য বিজেপিতে টেনেছেন অর্জুন সিং। আদিত্য সিং আবার যুব তৃণমূল কংগ্রেসের একটি পদে ছিলেন।

আর আদিত্য সিং এর বিজেপিতে যোগদানের পর থেকেই জোর জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছিলো যে তবে কি এবার বাবার পালা। ছেলে আদিত্য সিং এর পর এবার বাবাও কি বিজেপিতে যাবেন। আর এদিন সেই জল্পনাকেই উস্কে দিলেন অর্জুন সিং।

জানা যাচ্ছে যে, তৃণমূলের আরও এক বিধায়ক সুনীল সিং এর বাড়িতে সোজা পৌঁছে গেলেন সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া অর্জুন সিং। স্বাভাবিকভাবেই এই নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গেছে। যদিও এই নিয়ে সব জল্পনায় জল ঢেলেছেন খোদ অর্জুন সিং। তিনি দাবি করেছেন যে, এই বাড়িটি তাঁর বোনের, ফলে সেই সূত্র ধরেই তিনি সুনীল সিং এর বাড়ি যান। সাথে তিনি এও দাবি করেন যে যে সময় তিনি সুনীল সিং এর বাড়ি গিয়েছেলন সেই সময় সুনীল সিং বাড়িতে ছিলেন না।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু এতে সন্তষ্ট নয় রাজনৈতিকমহল।কয়েকদিন আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শ্রীরামপুরে বিজেপি প্রার্থী দেবজিৎ সরকারের সমর্থনে সভা করেন সেখানে তিনি দাবি করেছিলেন যে তৃণমূল ৪০ জন বিধায়ক বিজেপির সাথে যোগাযোগ রাখছেন। আর তার পরেই সুনীল সিং এর বাড়িতে অর্জুন সিং ফলে জল্পনা এত সহজে পিছু ছাড়বে না তা কিন্তু খুব ভালো মতো জানেন অর্জুন সিং আর তারপরেও সুনীল সিং এর বাড়িতে যাওয়া প্রশ্ন চিহ্ন ফেলছে। ।

অন্যদিকে,তৃণমূলের দাবি যে সুনীল সিং তৃণমূলে থাকবে। বিজেপিতে যাবে না। অর্জুন সিং ভোটের মরসুমে সুনীল সিং এর ভাবমূর্তি খারাপ করার লক্ষে এই কাজ করছে। কিন্তু বিজেপির অন্দরে এই নিয়ে কেন কথা নেই। অর্জুন শিবিরের দাবি বড় চমক আছে। তবে সেটা কি সুনীল সিং নাকি অন্য কিছু তা পরিষ্কার নয়।

ফলে রাজনৈতিকমহলের দাবি এহেন পরিস্থিতিতে চাপ বাড়লো তৃণমূলের। কেননা লোকসভা নির্বাচন ঘিরে দীনেশ ত্রিবেদীর সঙ্গে বেশ কয়েকদিন ধরেই প্রচারের মঞ্চে দেখা যাচ্ছে সুনীল সিংকে। আর এর পর অর্জুন সিং এর এহেন পদক্ষেপে কোনঠাসা হতে হতে পারে সুনীল সিং কে। যেমনটা হয়েছে সব্যসাচী দত্তর বাড়িতে মুকুল রায়ের লুচি-আলুরদম খাওয়ার পর। দলে একপ্রকার ব্রাত্য ওই বিধায়ক। প্রচারেও দেখা যায়নি তাঁকে। ফলে নিছকই ‘আত্মীয় বাড়ি’ যাওয়া নাকি তৃণমূলের সন্দেহ বাড়িয়ে তাঁকে কোনঠাসা করে দিয়ে বিজেপিতে টানা কোন চাল দিলেন অর্জুন সিং তা এখন দেখার।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!