এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অপরিকল্পিত লকডাউনের জন্য কেন্দ্রকে কড়া আক্রমন অভিষেকের, জেনে নিন

অপরিকল্পিত লকডাউনের জন্য কেন্দ্রকে কড়া আক্রমন অভিষেকের, জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – এক বছর আগেকার ভয়াবহ স্মৃতি ভুলতে পারছে না গোটা দেশবাসী। যেখানে করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরবন্দী হয়ে যেতে হয়েছিল সাধারণ মানুষজনকে। প্রায় এক বছরের মত সময় লকডাউনের জন্য রুজিরুটিকে সম্পূর্ণরূপে পেছনে ফেলে গৃহবন্দি হয়ে গিয়েছিলেন সাধারন মানুষ। অনেকেই তাদের কাজ হারিয়ে ফেলেছিলেন। আর এই পরিস্থিতিতে এক বছর পার হওয়ার পর আবার নতুন করে যখন করোনা ভাইরাস মাথাচাড়া দিতে শুরু করেছে, তখন সেই লকডাউনের স্মৃতি ফিরে আসতে শুরু করল বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা মন্ত্রীদের বক্তব্যের মধ্যে দিয়ে।

যেখানে বাংলার বিধানসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে একদিকে তৃণমূল সরকার দাবি করছে, লকডাউনের সময় একমাত্র তারা সাধারণ মানুষের পাশে ছিলেন, অন্যদিকে বিজেপি সরকার দাবি করছে, কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সাহায্য দেওয়া হয়েছিল বাংলার মানুষকে। আর এই পরিস্থিতিতে এবার নির্বাচনী জনসভা থেকে অপরিকল্পিত লকডাউনের জন্য মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে ফেলেছিলেন বলে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি তথা সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

সূত্রের খবর, আজ তুফানগঞ্জে নিজের নির্বাচনী প্রচার করেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেখানেই লকডাউনকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারকে আক্রমণ করেন তিনি। পাশাপাশি লকডাউনের সময় রাজ্যের তৃণমূল সরকার মানুষকে যেভাবে সহযোগিতা করেছে, সেই কথাও তুলে ধরার চেষ্টা করেন তৃণমূলের অলিখিত সেকেন্ড-ইন-কমান্ড।


ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

এদিন তিনি বলেন, “এই লকডাউনের ফলে মানুষের চাকরি চলে গিয়েছে। ব্যবসায় ক্ষতি হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই পরিস্থিতিতে বিনামূল্যে রেশন দিয়েছেন।” অর্থাৎ এক বছর আগেই লকডাউনের পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে মানুষ যখন কার্যত গৃহবন্দি, তখন তৃণমূল সরকার সাধারণ মানুষের পাশে থেকেছে বলে দাবি করার চেষ্টা করলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই কথা বলে এক ঢিলে দুই পাখি মারার চেষ্টা করলেন। একদিকে তিনি যেমন বুঝিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন যে, বিপদে তৃণমূল কংগ্রেস মানুষের পাশে থাকে, ঠিক তেমনই লকডাউন অপরিকল্পিতভাবে করে মানুষকে বিপদে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হলেন তিনি। অর্থাৎ সাধারণ মানুষের পাশে এবং দুর্দিনে বিজেপি কোনভাবেই সক্রিয় নয় বলে বোঝানোর চেষ্টা করলেন তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি।

অর্থাৎ এক বছর আগেকার লকডাউনের পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে এবার নির্বাচনী জনসভা থেকে বিজেপিকে কিছুটা হলেও অস্বস্তির মুখে ফেলে দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

 

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!