এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কংগ্রেসের সাথে জোট বাধা নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক বাড়ালেন অনুব্রত

কংগ্রেসের সাথে জোট বাধা নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্ক বাড়ালেন অনুব্রত



বঙ্গে কংগ্রেসের সাথে তেমন সুসম্পর্ক না থাকলেও সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীর সাথে বর্তমানে খুব ভালো সম্পর্ক।তাই মোদিবাহিনীকে পরাস্ত করতে ২০১৯ এ জোট বাঁধতে পারে মমতা তৃণমূল আর কংগ্রেস। আর এর সম্ভাবনাও প্রবল। কেননা কয়েকদিন আগেই রাষ্ট্রপতি ভোটে একজোট হয়েছিলেন মমতা আর সোনিয়া। কিন্তু তৃণমূলের অন্দরমহল কি এতে অখুশি? এবার মমতার প্রিয় অনুব্রতর কথায় বাড়লো জল্পনা।বীরভূমের লোহাপুরে তৃণমূলের এক জনসভায় বক্তিতা দিতে গিয়ে তিনি কংগ্রেসকে একহাত নেন আর সাথে কংগ্রেসের সাথে তৃণমূলের জোট বাঁধা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন আর সেই নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। এদিন তিনি বলেন ‘‘এরাজ্যে কংগ্রেসকে সঙ্গে নেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই৷কী জন্য কংগ্রেসকে নেব? আমি চাষ দেব, মই দেব, ফসল ফলাব আর কংগ্রেসকে ধান কাটতে দেব? কোনও প্রয়োজন নেই।’’ একই সঙ্গে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ‘‘কীসের জোট, কার জোট? কী জন্য জোট করব? যাদের দু’পয়সা দাম নেই৷ কেন জোট করতে যাব!’’অনুব্রত কংগ্রেসের সাথে জোট না বাধা নিয়ে বক্তব্ব্য রেখেছেন তাই প্রশ্ন উঠছে দলে কি তবে কংগ্রেসের সাথে জোট হোক এটা চাইছেন না লের অনেকেই।অবশ্য এই কথাকে অনেকে গুরুত্ত্ব দিচ্ছেন না।
তাদের মতে বিধানসবায় কে দিন আগেই কংগ্রেসকে সাবধান করেছিল তৃণমূল নেত্রী তিনি বলেছিলেন দিল্লিতে দোস্তি আর এখানে কুস্তি চলবে না। ফলে অনুব্রতও সেই একই রাস্তায় হেঁটে কংগ্রেসকে বার্তা দিলেন।তবে তৃণমূলের অন্দরে এই নিয়ে নামমাত্রও বিচলিত নন কেননা তারা মনে করছেন রাজ্যে তৃণমূলই শেষ কথা। আর ২০১৯ এ তৃণমূল আরো ব্যাপকভাবে আসবে। এমনকি কেন্দ্রীয় সরকার গঠন করতেও বড় ভূমিকা নেবে।তাই জোট বাধার তাগিদ কংগ্রেসের তৃণমূলের নয়।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!