এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > মুকুল-পুত্র ফোন করে বলতেন, ‘বাবাকে একটু দেখুন’, বিস্ফোরক অভিযোগ অনুব্রত মন্ডলের

মুকুল-পুত্র ফোন করে বলতেন, ‘বাবাকে একটু দেখুন’, বিস্ফোরক অভিযোগ অনুব্রত মন্ডলের



গতমাসের শেষের দিকে বীরভূমে সভা করতে গিয়ে পুলিশের অনুমতি না পাওয়ায় সভা করতে পারেনি বিজেপি। আর তাই একরাশ ক্ষোভ উগরে দিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায় জানান, পরেরবার এখানে এসে এখানকার তৃণমূল জেলা সভাপতির বিরুদ্ধে এমন কিছু বলব হয় তিনি নিজেই রাজনীতি ছেড়ে দেবেন বা দল তাঁকে তাড়িয়ে দেবে। এরপর কিছুদিন আগেই বীরভূমের তাঁতীপাড়ায় এক জনসভা করে বিজেপি। সেখান থেকে বিজেপি নেতা মুকুল রায় নাম না করে, তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতির দিকে রাইস মিল ও জমি দুর্নীতির অভিযোগ ছুঁড়ে দেন, বকলমে অনুব্রত মন্ডলের ‘সোর্স অফ ইনকাম’ বা আয়ের উৎস নিয়ে প্রশ্ন তুলে দেন, যা নিয়ে বেশ সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতি।
এরপর গতকাল বীরভূমে ‘পুরোহিত সম্মেলন’ অনুষ্ঠান করেন বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মন্ডল। সেই অনুষ্ঠানের শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি। সেখানে কিছুদিন আগে করা মুকুলবাবুর অভিযোগ নিয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তিনি সরাসরি মুকুল রায়কে ‘চোর’ বলেন। তিনি প্রশ্ন তোলেন, একজন চোর তো একথা বলতেই পারে। ও (মুকুল রায়) কতবড় চোর? ওর সোর্স অফ ইনকাম কি ছিল? মুকুল রায়কে জিজ্ঞাসা করুন, কেন ওর বাড়ি থেকে আমাকে ফোন করত? ওর পুত্র কেন ফোন করত আমাকে? বলত, বাবাকে একটু দেখ! কি দেখব? এতগুলো লোকের সামনে তো খুলে সেকথা বলা যায় না। সেটাও তো সামলাতে হয়েছে। এরপরেই তিনি জানান ‘পুরোহিত সম্মেলন’ অনুষ্ঠান কোনো বিশেষ ধর্মকে তুষ্ট করতে বা ভোটব্যাঙ্কের রাজনীতির কথা মাথায় রেখে নয় বরং দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সকলকে নিয়ে, সকল ধর্মকে নিয়ে এক সাথে চলার জন্য করেছেন। আর বীরভূমে বিজেপির সংগঠন বাড়ছে, এই দাবিকে নস্যাৎ করে দিয়ে বলেন, কোথায় বিজেপি বাড়ছে? কোনো ভোটব্যাঙ্ককে তোষণ করে তিনি কিছু করছেন না। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে বীরভূম জেলার ১৬৭ টি পঞ্চায়েত আসনই আমি পাব। স্বাভাবিকভাবেই মুকুল রায়ের পুত্রকে জড়িয়ে মুকুল বাবুর বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ তিনি নিয়ে এসেছেন তারপরে হইচই পরে গেছে রাজ্য-রাজনীতিতে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!