এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > অনুব্রত মন্ডলকে জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা নিয়ে চূড়ান্ত গুঞ্জন রাজনৈতিক মহলে

অনুব্রত মন্ডলকে জেড ক্যাটেগরির নিরাপত্তা নিয়ে চূড়ান্ত গুঞ্জন রাজনৈতিক মহলে



১৯৯৪ এর বামফ্রন্ট আমলে সরকারি নিরাপত্তাধীন ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলা সভাপতি অনুব্রত মন্ডল, এমনটাই এদিন দাবি করেন তিনি। সাংবাদিকদের নিরাপত্তা বিষয়ক প্রশ্নে তিনি জানান,”আমার বরাবরই নিরাপত্তারক্ষী আছে। তবে জেড ক্যাটাগরি কেন করল তা প্রশাসন বলতে পারবে। কেন দিয়েছে তা একমাত্র বলতে পারবে জেলা পুলিশ সুপার কিংবা স্বরাষ্ট্র দফতর। আমি জীবনে কোনদিন ভয় পায়নি। এখনও ভয় পায় না। বীরভূম জেলা কেন কোন জেলাতে ভয় পায় না। আমি মৃত্যুর ভয় করি না। আমার একটা পুলিশ থাকলেও চলবে, না থাকলেও চলবে।” এমনটাই সাংবাদিক সূত্রের খবর। জানা গেছে ওয়াই থেকে জেড- এ উন্নীত নিরাপত্তারক্ষী নিয়েই তিনি যান তারাপীঠ থানার তারাপুর প্রাইমারি স্কুলের এক মহিলা সম্মেলনে। এদিন তিনি রাজ্যের উন্নয়নে মহিলাদের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে বলেন, “আমরা প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রী বিধান চন্দ্র রায়কে শ্রদ্ধা করি। প্রনাম করি। উনি পশ্চিমবঙ্গের জন্য চিন্তা করেছিলেন। তারপর যদি কেউ চিন্তা করেন তিনি হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।” তবে অনুব্রতর ১৯৯৪ এর দাবির বিষয়টি উড়িয়ে দিয়ে তৎকালীন বীরভূম জেলা পরিষদের সভাপতি ব্রজ মুখোপাধ্যায় জানান, “১৯৯৪ সালে অনুব্রতর কোন অস্তিত্ব ছিল? তাকে কেউ চিনত? তাছাড়া নিরাপত্তা পাওয়ার একটা কারণ থাকবে। আমি সভাধিপতি হওয়ার দুই বছর পর একজন পুলিশ পেয়েছিলাম। পদাধিকারী না হলে কেউ নিরাপত্তারক্ষী পায় না। যখন উনার কেউ নাম জানত না তখন উনাকে সরকার নিরাপত্তা দিতে যাবে কেন? তার দল সরকারে আসার পর তার নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।” এমনটাই সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা গেছে। তবে বরাবরই তাঁকে ডাকাবুকো নেতা বলে চেনে রাজনৈতিক মহল, জনশ্রুতি বীরভূম জেলায় তাঁর কথাটা বাঘে-গরুতে একঘাটে জল খায়, তবুও তাঁর নিরাপত্তা বাড়িয়ে একেবারে জেড ক্যাটেগরির করা হাওয়ায় যথেষ্টই গুঞ্জন রাজনৈতিক মহলে। তাহলে কি বঙ্গে ধীরে ধীরে অন্য শক্তি বাড়ছে?

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!