এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > অনুব্রত গড়ে তৃণমূল নেতাকে মার,তদন্তে সিউড়ি থানার পুলিশ

অনুব্রত গড়ে তৃণমূল নেতাকে মার,তদন্তে সিউড়ি থানার পুলিশ



অনুব্রত মন্ডলের বীরভূম রাজনীতির উত্তপ্ত ক্ষেত্রভূমি। পঞ্চায়েত নির্বাচন হোক বা বিধানসভা কিংবা লোকসভা বীরভূমের রাজনৈতিক খবর, শাসকদলের দাপুটে কান্ড কারখানা বরাবরই চাঞ্চল্য ছড়ায় রাজ্যরাজনীতি সহ জাতীয় স্তরেও। এবার সেই অনুব্রত গড়ই খবরের শিরোনামে এল ভিন্ন স্বাদের এক ঘটনার জেরে। বেশ কিছুদিন ধরেই মদ্যপদের সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে এলাকায়। প্রতিবাদ করতে গিয়েই আক্রমণের শিকার হলেন তৃণমূলের বুথ সভাপতি ও তা স্ত্রী রীনা দেবী।

প্রিয় বন্ধু বাংলার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ – Priyo Bandhu Bengali

—————————————————————————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় এক একাদশ শ্রেনীর ছাত্র অভিজিৎ দাস ভগবানবাটি এলাকার পুকুর থেকে বাড়ি ফিরছিলো। অন্ধকারে পথ দেখতে টর্চ জ্বালে অভিজিৎ। তাতেই দেখে পুকুর পাড়েই বসেছে মদের আখড়া। এবং হঠাৎ আলো দেখে মুহূর্তেই রাগ তুঙ্গে ওঠে নেশাখোর যুবকদের। এরপর বেশ কিছু মদ্যপ বেধড়ক মারধোর শুরু করে একাদশ শ্রেনীর পড়ুয়াকে। এই ঘটনার খবর পেয়ে পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণে অবিলম্বে ঘটনাস্থলে পৌছান ভগবানবাটির তৃণমূলের বুথ সভাপতি এবং তাঁর স্ত্রী। সেখানেই বুথ সভাপতি হুমকি দেয় নেশাগ্রস্ত যুবকরা। এই ঘটনার পর এদিন সকালে স্ত্রী সমেত সিউড়ি যাচ্ছিলেন বুথ সভাপতি। পথে একা পেয়ে তাঁদের উপর চড়াও হন ওই যুবকেরা। সেখানেই মারধোর শুরু করে। ওই স্থান থেকেই কোনো মতে বেরিয়ে প্রাণ বাঁচান বুথ সভাপতি ও তাঁর স্ত্রী।

এদিন রাস্তায় ফেলে পেটানোর লিখিত অভিযোগও দায়ের করে এসেছেন তাঁরা সিউড়ি থানায়। হেনস্থার শিকার তারকবাবু জানান যে, নেশা করে বেয়াদপির প্রতিবাদ জানানোর জেরে এভাবে তাঁদের মার খেতে হল। গোটা ঘটনাটাই তিনি তৃণমূলের দলীয় নেতৃত্বকে জানিয়েছেন। এছাড়া সিউড়ি থানায় লিখিত অভিযোগও দায়ের করেছে বলে জানান তিনি। অভিযোগ পেয়েই তড়িঘড়ি করে তদন্তে নেমে পড়েছে সিউড়ি থানার পুলিশ। যদিও অভিযুক্তদের কেউই এখনো পুলিশের হাতে আসেনি বলে জানা যাচ্ছে জেলা সূত্রের খবর থেকে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!