এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > মানা হলো না অনুব্রতর নির্দেশ, বীরভূমে মহরমের মিছিলে দেখা গেলো

মানা হলো না অনুব্রতর নির্দেশ, বীরভূমে মহরমের মিছিলে দেখা গেলো



এই মহরমে যাতে অস্ত্র নিয়ে পথে কেউ না বের হন তার জন্য আগাম উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল বীরভূম জেলা তৃণমূল সংখ্যালঘু সেলের পক্ষ থেকে। কিন্তু শেষপর্যন্ত জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল ও বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের সমস্ত উদ্যোগকে উপেক্ষা না করেই বীরভূমের বিভিন্ন প্রান্তে চলল অস্ত্রমিছিল। খুদেদের হাতে ও দেখা গেল ধারালো অস্ত্র।

বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের মতে, মহরমের এই উৎসবে উপবাস করে নিজেকে সংযত রেখে শোকজ্ঞাপন করতে হয়। রাস্তায় বের হয় বর্ণাঢ্য তাজিয়া। ইসলাম ধর্মে কোথাও মহরমে অস্ত্র নিয়ে পথে নামার কথা উল্লেখ নেই বলেই সচেতন অভিযান শুরু করা হয় অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে। প্রতিটি মহরম কমিটির কাছে আবেদন পাঠানো হয় বেঙ্গল ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে|

অন্যদিকে বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল মহরমের আগে সংখ্যালঘু সংগঠনের বৈঠক করেন। অনুব্রতবাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মৎস্যমন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিংহ, সভাধিপতি বিকাশ রায়চৌধুরি, সহ সভাপতি অভিজিৎ সিংহ, সংখ্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি শেখ কাজি প্রমুখ। বৈঠক শেষ করে তিনি জানিয়েছিলেন বৈঠকে  সিধান্ত নেওয়া হয় এবার মহরমে কোথাও অস্ত্র মিছিল বের করা যাবে না। সাথেই তিনি জানিয়েছিলেন যে, দুর্গাপুজোয় নিরঞ্জন দেখে মানুষ যেমন আনন্দ পান, তেমনই মহরম দেখেও আনন্দ পাবেন। আবেদন করলাম, সবাই মিলে শান্তিপূর্ণভাবে মহরম করবেন। ইসলাম ধর্ম খুব কঠিন,পবিত্র ও মানুষকে ভালো বার্তা দেওয়ার ধর্ম। ওদের ধর্মে কোনও তলোয়ার,লাঠি খেলা নেই। এতজন মৌলবী ছিলেন তারা অনেক কথা বললেন, কেউ কিন্তু লাঠি খেলার কথা বললেন না।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

সাংবাদিক বৈঠকেও তিনি এই কথা জানিয়ে দেন| কিন্তু, তা সত্ত্বেও অস্ত্রমিছিল দেখা গেল বীরভূমের বিভিন্ন প্রান্তে| আজ সমস্ত সচেতনতা, আবেদন সব কিছুকে উপেক্ষা করে বীরভূমের মানুষজন অস্ত্র নিয়ে পথে নেমেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!