এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরভোটের আগেই বাংলায় হতে চলেছে আরও এক গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন! জেনে নিন বিস্তারিত

পুরভোটের আগেই বাংলায় হতে চলেছে আরও এক গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন! জেনে নিন বিস্তারিত



পশ্চিমবঙ্গের পৌরসভা নির্বাচন নিয়ে সব মহলেই জল্পনা চলছে‌। কবে এই পৌরসভা নির্বাচন হবে, তা নিয়ে এখনও বিজ্ঞপ্তি জারি হয়নি। তবে এবার একটি নির্বাচন এসে পড়ল এই রাজ্যে। বস্তুত, প্রায় বিভিন্ন সময়েই খবরের শিরোনামে উঠে আসতে দেখা গেছে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি ফোরামকে। কখনও বকেয়া টাকার সমস্যা, আবার কখনও বা নিজেদের মধ্যে বিবাদ।

তবে এবার আর এই সমস্ত কারণে নয়, এবার সরাসরি খবরের শিরোনাম আলোড়িত হল, টলিউড ইন্ডাস্ট্রির আর্টিস্ট ফোরামের নির্বাচন নিয়ে। সূত্রের খবর, শীঘ্রই ওয়েস্টবেঙ্গল মোশন পিকচার্স আর্টিস্ট ফোরামের কার্যকরী সভাপতি পদের জন্য নির্বাচন হবে। জানা গেছে, আগামী 9 ফেব্রুয়ারি রবিবার যোধপুর পার্ক বয়েজ স্কুলে এই নির্বাচন হবে।

আর তা নিয়েই এখন রীতিমত গুঞ্জন শুরু হয়েছে সেখানে। কিন্তু কার্যকরী সমিতির এই নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে কে কে দাঁড়াচ্ছেন! সূত্রের খবর, যে চারজনের নাম সবথেকে বেশি শোনা যাচ্ছে, তারা হলেন, ভরত কল, শংকর চক্রবর্তী, অঞ্জনা বসু এবং পার্থসারথি দেব। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত দু’বছর ধরে এই কার্যকরী সভাপতি পদে ছিলেন অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তবে সম্প্রতি তিনি পদত্যাগ করার পর সেই সভাপতি পদের গ্রহণের জন্য অভিনেতা জিৎ মদনানী এবং গায়ক অরিন্দম গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু দুজনেই তা নাকচ করে দেন। আর এরপরই কার্যকরী সভাপতি পদের জন্য এই চার অভিনেতা-অভিনেত্রীকে মনোনীত করা হয়। আর এবার নির্বাচনের দিন ঠিক হয়ে যাওয়ায়, এই চার ব্যক্তির মধ্যে চরম টক্কর হতে পারে বলে মনে করছে একাংশ।

তবে অনেকে বলছেন, মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে শংকর চক্রবর্তী এবং ভরত কলের মধ্যে। এদিন এই প্রসঙ্গে ভরত কল বলেন, “শঙ্করের মত দায়িত্ববান প্রার্থীর কাছে আমি হারতেও রাজি আছি। কিন্তু ইন্ডাস্ট্রিকে সেভাবে চেনে না, কিংবা জানে না, সেরকম কোনো প্রার্থীর হাতে ক্ষমতা গেলে তা মোটেই সুখকর হবে না।”

অর্থাৎ শংকর চক্রবর্তীর প্রথমে প্রশংসা করলেও, তার অভিজ্ঞতা নেই বলে বোঝাতে চেয়ে প্রতিদ্বন্দী হিসেবে শংকরবাবুকে কটাক্ষ করলেন ভরতবাবু বলেই মনে করছে একাংশ। এদিকে এদিন এই প্রসঙ্গে শংকর চক্রবর্তী বলেন, “ফোরামের সদস্যরা যাই সিদ্ধান্ত নিক না কেন, মাথা পেতে নেব।” এখন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের পর টলিউড ইন্ডাস্ট্রির আর্টিস্ট ফোরামের কার্যকরী সভাপতি পদে কে বসেন! সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!