এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শাহের বঙ্গ সফরে সব নিখুঁত করতে ঘুম উড়েছে বিজেপি নেতাদের? ছুটছেন মুকুল থেকে শিবপ্রকাশ সকলেই?

শাহের বঙ্গ সফরে সব নিখুঁত করতে ঘুম উড়েছে বিজেপি নেতাদের? ছুটছেন মুকুল থেকে শিবপ্রকাশ সকলেই?



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –বাংলায় আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় চাণক্য তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আর অমিত শাহের সফরের আগে খুঁটিনাটি সমস্ত দিক দেখে নিচ্ছে বিজেপির রাজ্য থেকে শুরু করে জেলা নেতৃত্বরা। জানা গেছে, রবিবার বাঁকুড়ায় অমিত শাহের বৈঠকের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়, বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন, শিবপ্রকাশ সহ অন্যান্যরা।

অর্থাৎ শেষ মুহূর্তে যাতে বিজেপির সর্বভারতীয় প্রাক্তন সভাপতির এই সফরে কোনাল ত্রুটি ধরা না পড়ে, তার জন্যই এবার বাঁকুড়া জেলা বিজেপি নেতৃত্ব থেকে শুরু করে রাজ্য নেতৃত্ব তৎপর হয়ে উঠেছে। যার কারণে রাজ্য নেতৃত্ব এবং পর্যবেক্ষকরা বাঁকুড়া সফর করলেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সামনেই 2021 এর বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এখন বাংলার দিকে বাড়তি নজর দিতে শুরু করেছে। যার ফলস্বরূপ আগামী 5 নভেম্বর রাজ্যে এসে বাঁকুড়ার রবীন্দ্রভবনে দলীয় বৈঠক করার কথা রয়েছে বিজেপির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। আর অমিত শাহের সফরের খুঁটিনাটি দিক খতিয়ে দেখতে মুকুল রায়, শিবপ্রকাশ এবং অরবিন্দ মেননদের এই বাঁকুড়া সফর বলে দাবি বিজেপির ঘনিষ্ঠ মহলের।

তবে অমিত শাহের এই সফরকে নিয়ে এখন কিছুটা হলেও চিন্তায় রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। জানা গেছে, রবিবার পর্যন্ত বিজেপির পক্ষ থেকে বাঁকুড়ার রবীন্দ্রভবন পাওয়া নিয়ে চূড়ান্ত কোনো কথা বলা হয়নি। তবে রবীন্দ্রভবন যদি পাওয়া না যায়, তাহলে অমিত শাহের এই সভা কোথায় হবে, তা নিয়ে ব্যাপক সংশয় তৈরি হয়েছে। বিজেপির অভিযোগ, গত লোকসভা ভোটের মুখে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সভার ক্ষেত্রেও অনুমতি দিতে টালবাহানা করেছিল বাঁকুড়া প্রশাসন।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

তাই এবারে শেষ মুহূর্তে যাতে এই সভায় শুধুমাত্র রবীন্দ্রভবন না পাওয়ার জন্য সভা বাতিল করতে না হয়, তার জন্য পরিকল্পনা শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। যদিও বা এখনও পর্যন্ত রবীন্দ্রভবন বুক করার জন্য বিজেপির পক্ষ থেকে কোনো আবেদন আসেনি বলে জানিয়ে দিয়েছেন বাঁকুড়া সদরের মহকুমা শাসক সুদীপ্ত দাস।

কিন্তু কেন এখনও রবীন্দ্রভবন বুক করা হয়নি? এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেন, “অমিত শাহ বাঁকুড়ায় সীমিত কিছু দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করবেন। এখনও পর্যন্ত যা খবর তাতে মনে হচ্ছে, হয়ত রবীন্দ্রভবনে বৈঠক করার অনুমতি আমরা পেয়ে যাব। যদি না পাই, তখন অন্য ব্যবস্থা করা হবে। দেখা যাক কি হয়।” এদিকে এই ব্যাপারে তারা ইতিমধ্যেই রবীন্দ্রভবন বুক করার কথা প্রশাসনকে জানিয়েছেন বলে দাবি করেন বাঁকুড়া সাংগঠনিক জেলা বিজেপি সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র।

এদিন তিনি অভিযোগ করে বলেন, “রবীন্দ্রভবন বুক করার জন্য আমরা নিয়ম মেনে আবেদন করেছি। প্রশাসন যদি তৃণমূলের নির্দেশে অনুমতি না দেয়, তাহলে আমরা পাল্টা আন্দোলনে নামব।” তবে তৃণমূলের পক্ষ থেকে বিজেপির এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। এদিন এই প্রসঙ্গে বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা বলেন, “তৃণমূল গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। প্রশাসনিক কাজে আমরা হস্তক্ষেপ করি না।”

তবে বিজেপি যখন 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করে এগোতে শুরু করেছে, তখন অমিত শাহের এই সফরে যাতে কোনো ত্রুটি বিচ্যুতি না আসে, তার জন্য এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে বিজেপির রাজ্য এবং জেলা নেতৃত্ব। সব মিলিয়ে গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, অমিত শাহের এই সফরে সমস্ত কর্মসূচি কতটা স্বচ্ছতার সঙ্গে করতে পারে ভারতীয় জনতা পার্টি, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!