এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রামনবমীতে ঘুরপথে ‘আইন-ভেঙে’ তৃণমূলকে বার্তা দিতে তৈরি রাজ্য বিজেপি

রামনবমীতে ঘুরপথে ‘আইন-ভেঙে’ তৃণমূলকে বার্তা দিতে তৈরি রাজ্য বিজেপি



বিজেপিকে টেক্কা দিতে এবার তৃণমূল রামনবমী পালন করবে রাজ্যে অন্তত এমনটাই জানানো হয়েছে তৃণমূলের তরফ থেকে আর এই নির্দেশ দিয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।তবে এই রামনবমী পালনে যেন কোনো অস্ত্র ব্যাবহার না হয় তাও স্পষ্ট করে বলে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে এতে আবার বিজেপির আশঙ্কা বেড়ে গেছে তারা মনে করছে যে পুলিশ গেরুয়া শিবিরের ক্লাব গুলিকে রামনবমী মিছিলের অনুমতি দেবেনা। এই নিয়ে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানান, ”রামনবমী পালনের জন্য আমরা পুলিশের অনুমতি চাইব না। পুলিশকে জানাব মাত্র। তারা না চাইলেও রামনবমী পালন করা হবে। পুলিশ ধর্মীয় উত্‍সবে বাধা দিলে তার জবাব তাদের পেতে হবে।” পাশাপাশি এদিন অনুমতির প্রসঙ্গ টেনে এনে এদিন দক্ষিণবঙ্গের আরএসএস প্রচার প্রমুখ বিপ্লব রায় সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি কবিতার মাধ্যমে জানান, ”সবাই মিলে খালি হাতে/ দল বেঁধে একই সাথে/ মুখে ধ্বনি আগুন বুকে/ মিছিল হবে চতুর্দিকে।” জানা গেছে যে দিলীপ বাবু নিজে রামনবমী আগের দিন মেদিনীপুরে মোটরবাইক মিছিল এবং রামনবমী দিন গদা হাতে খড়্গপুর বিধানসভা কেন্দ্রের মিছিলে যোগ দেবেন।তাছাড়া অস্ত্রবিসয়ে জানান যে,”আখড়াগুলি তাদের ঐতিহ্য মেনে রামনবমী করবে। বিজেপি দল হিসাবে কোথাও রামনবমী পালন করে না। বরাবরই হিন্দুদের বিভিন্ন আখড়া, ক্লাব জেলায় জেলায় ওই উত্‍সব করে। বিজেপি তথা সঙ্ঘ পরিবারের কর্মীরা সংগঠনের ব্যানার ছাড়া ব্যক্তিগত ভাবে তাতে সামিল হন। সুতরাং, অস্ত্রের ব্যাপারে আখড়াগুলিকে আমরা কিছুই বলব না।” এদিকে রামনবমী নিয়ে নিয়ে আবার তৃণমূলের মহাসচিব জানান, ”রামকে নিয়ে ওঁদের ঘৃণ্য রাজনীতি করা হিন্দুত্বের পরিচয় নয়। আর রামনবমী কি ওঁদের একার? রামনবমীতে পুলিশ অনুমতি দেবে কি না, সেটাই বা ওঁরা আগে কী করে জানছেন? পুলিশকে অগ্রাহ্য করে কিছু করলে প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে।” তবে এবারের রামনবমী যে বেশ জামে উঠেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!