এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > যোগী আদিত্যনাথের অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছেই

যোগী আদিত্যনাথের অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছেই



কিছু দিন আগে গোরক্ষপুর ও ফুলপুরের উপনির্বাচনে হারার পরে যোগীকে নিশানা করলেন তাঁরই মন্ত্রিসভার এক সদস্য- সুহেলদেব ভারতীয় সমাজ পার্টির নেতা ওমপ্রকাশ রাজভড়। আবার আজও উত্তরপ্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের এক বছরের জন্মদিনের দিনটিতেই শরিকি বিক্ষোভের মুখে পড়লেন সরকার। এমন ভাবেই যেন ধীরে ধীরে যোগী আদিত্যনাথের অস্বস্তি ক্রমশই বাড়ছে।
এদিকে ক্ষুব্ধও শরিক দলের নেতা জানিয়েছেন, রাজ্যসভা ভোটের ব্যাপারে অমিত শাহের সঙ্গে কথা না হলে তিনি রাজ্যসভার ভোট বয়কট করতে চলেছেন। উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় রাজভড়ের দলের চার জন বিধায়ক রয়েছে। আবার রাজভারের দল দিল্লিতেও এনডিএ-রও শরিক। তারাও যোগ দিয়েছেন এই বিক্ষোভে। রাজভড়ের মন্তব্য, ”বিজেপি জোট ধর্ম মানছে না। আমরা উদ্বেগের কথা জানাচ্ছি। কিন্তু ৩২৫টি আসনের নেশা ওদের পাগল করে দিয়েছে।” যোগী সরকারের মন্ত্রী বলেন, ”ভেবেছিলাম রাজ্য সরকার গরিবের জন্য কাজ করবে। কিন্তু তেমন কিছু ঘটেনি।” তাঁর মন্তব্য, ”সত্যি বলাটা বিদ্রোহ হলে, আমি সেটাই করছি।’ আর শরিক দলের নেতা জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের বিধানসভায় বিজেপি ৩২৫টি আসন পাওয়ার পরে বিজেপির মাথা ঘুরে গিয়েছে।
রাজভড়ের মতো নেতাদের পাশাপাশি রামবিলাস পাসোয়ানের মতো নেতারাও বিজেপির বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। এবং সব মিলিয়ে মায়াবতী ও অখিলেশ একজোট হয়ে গোরক্ষপুর ও ফুলপুরে সফলতা আবার বিহারের উপনির্বাচনে লালুপ্রসাদের দলের সাফল্য বিজেপি দলের প্রবল চিন্তার কারণ হয়ে উঠেছে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!