এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > বিজেপি > আক্রান্ত কর্মীদের পাশে দাঁড়াতে নয়া উদ্যোগ বিজেপির, জেনে নিন!

আক্রান্ত কর্মীদের পাশে দাঁড়াতে নয়া উদ্যোগ বিজেপির, জেনে নিন!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – ভোটের ফলাফল প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি নেতা কর্মীরা আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন। ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে রাজ্যপালের কাছে অভিযোগ জানিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। রাজ্যের ক্ষমতা দখলের ব্যাপারে এবার বিজেপি আত্মবিশ্বাসী হলেও, শেষ পর্যন্ত তারা মুখ থুবড়ে পড়েছে। তৃতীয়বারের জন্য ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে রাজ্যের ক্ষমতা দখল করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর এরপর থেকেই বেছে বেছে বিজেপি নেতা কর্মীদের ওপর হামলা হচ্ছে বলে বিভিন্ন খবর সামনে আসছে।

আর এই পরিস্থিতিতে দলের নেতা-কর্মীদের পাশে থাকতে রাজ্যে এসেছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। একদিকে দলের পরাজয় এবং অন্যদিকে নেতাকর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ক্রমাগত চাপে রাখছে গেরুয়া শিবিরকে। তাই এই পরিস্থিতিতে দলের নেতা-কর্মীরা কোনোভাবেই পিছিয়ে না যান এবং লড়াই থেকে সরে না আসেন, তার জন্য সকলকে উজ্জীবিত করার চেষ্টা করছেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। এবার রাজ্যে যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের সকলের বাড়িতে দলীয় নেতৃত্ব পৌঁছে যাবে বলে জানিয়ে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি।

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার রাজ্যে এসে দলের আক্রান্ত নেতা-কর্মীদের বাড়িতে পৌঁছে যান বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা। আর সেখানেই আক্রান্ত দলীয় কর্মীদের বাড়িতে দলের নেতৃত্ব পৌঁছে যাবে বলে জানিয়ে দেন তিনি। পাশাপাশি ন্যায়বিচারের জন্য ভারতীয় জনতা পার্টি লড়াই করবে বলেও দাবি করতে দেখা যায় তাকে।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি বলেন, “আক্রান্তদের সবার বাড়িতে যাবেন দলের নেতৃত্ব। তাদের জন্য ন্যায়বিচারের লড়াই করবে বিজেপি।” অর্থাৎ ক্ষমতা দখল করতে না পারার কারণে বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি নেতা কর্মীরা যখন আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন, তখন কোনভাবেই যাতে তারা হতাশ হয়ে না পড়েন, তার জন্যই তাদের সকলের পাশে দাঁড়াতে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি এই বার্তা দিলেন বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আমাদের নতুন ফেসবুক পেজ (Bloggers Park) লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

একাংশ বলছেন, বর্তমান সময়ে বিজেপির শীর্ষনেতার এই মন্তব্য যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। ক্ষমতা দখল করার স্বপ্ন দেখলেও, বিজেপির পক্ষ থেকে 77 টি আসন দখল করে কোনোরকমে বিরোধী শক্তির জায়গা পেয়ে মুখ রক্ষা হয়েছে। তবে এইরকম ভাবে তাদের ওপর হামলা চলতে থাকলে ভবিষ্যতে যে নেতা-কর্মী খুঁজে পাওয়া বিজেপির পক্ষে অত্যন্ত চাপের হবে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

তাই সামনের দিনে তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই যাতে আরও তীব্র থেকে তীব্রতর করে গড়ে তোলা যায়, তার জন্য ভোটের ফলাফল পরবর্তী হিংসার ঘটনা তুলে ধরে দলের নেতৃত্বকে আক্রান্ত নেতা-কর্মীদের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়ে গেলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। এক্ষেত্রে এক ঢিলে দুই পাখি মারার চেষ্টা করলেন বলেই দাবি করছেন বিশেষজ্ঞরা।

একদিকে যেমন দলের আক্রান্ত নেতাকর্মীদের পাশে সব সময় থাকবে বলে বুঝিয়ে দিলেন জেপি নাড্ডা, ঠিক তেমনই তৃণমূলের বিরুদ্ধে সকলে মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করবেন বলেও নেতাকর্মীদের আশ্বস্ত করলেন তিনি। সব মিলিয়ে জেপি নাড্ডার এই মন্তব্যে বিজেপি নেতাকর্মীরা কতটা উজ্জীবিত হন, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!