এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এয়ার ইণ্ডিয়ার বেসরকারীকরণ নিয়ে বিজেপির অন্দরেই তীব্র বিতর্কের সূত্রপাত

এয়ার ইণ্ডিয়ার বেসরকারীকরণ নিয়ে বিজেপির অন্দরেই তীব্র বিতর্কের সূত্রপাত



জিএসটিতে আশানুরূপ কর আদায় হয়নি। শিল্প উৎপাদন তলানীতে ঠেকেছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেশ আর্থিক মন্দায় ধুঁকছে। কোষাগারের অবস্থা একেবারেই সংগীন। ফলে এবার ঋণ জর্জরিত রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা এয়ার ইন্ডিয়াকে বিক্রি করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। মার্চের মধ্যেই এয়ার ইন্ডিয়ার স্বত্ব বিক্রি হবে বলে জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক থেকে। এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারীকরণ এর বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত আগেই নেওয়া হয়েছিল বলে জানা গেছে। কারণ গত অর্থবর্ষে এয়ার ইন্ডিয়ার লোকসান হয়েছে 4 হাজার 600 কোটি টাকা। আর এবার এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারিকরণকে কেন্দ্র করে বিজেপির মধ্যেই বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানা গেছে, আগামী 17 ই মার্চের মধ্যে এয়ার ইন্ডিয়ার স্বত্ব কিনতে ইচ্ছুকদের নাম নথিভুক্ত করাতে হবে। আর এই সরকারী বিজ্ঞপ্তির পরেই বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে। বিজেপিতে থেকেই তিনি বিজেপির বিরুদ্ধে কথা বলেছেন পার্টি লাইনের বাইরে গিয়ে। এর ফলে রাজনৈতিক মহলে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। এয়ার ইন্ডিয়াকে বিক্রি করে দেওয়া নিয়ে এই বিতর্ক সৃষ্টি বলে জানা গেছে।

এদিন বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইটারের মাধ্যমে তাঁর ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে বলেছেন, মোদি সরকার দেশ বিরোধী কাজ করতে শুরু করেছে। এয়ার ইন্ডিয়াকে বেসরকারীকরণ করা মোটেই উচিত নয়। এ প্রসঙ্গে তিনি আরও জানিয়েছেন টুইটারে। তিনি লিখেছেন, ‘ আর তার জেরেই আমাকে আদালতে যেতে বাধ্য করা হচ্ছে। আমরা আমাদের পরিবারিক রুপো বিক্রি করতে পারিনা।’ টুইটারে তাঁর বক্তব্যে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী পরিষ্কার করে দিয়েছেন যে তিনি এবার কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সোজা আদালতের শরণাপন্ন হচ্ছেন।


দেশে যে কোনো দিন ব্যান হয়ে যেতে পারে হোয়াটস্যাপ। তাই এখন থেকে আমরা শুধুমাত্র টেলিগ্রাম ও সিগন্যাল অ্যাপে। প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার নিউজ নিয়মিতভাবে পেতে যোগ দিন –

টেলিগ্রাম গ্রূপটাচ করুন এখানে

সিগন্যাল গ্রূপটাচ করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারীকরণ নিয়ে অনেক আগে থেকেই বিরোধিতা করা হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে কপিল সিব্বল জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে দেশ চালাবার মতন অর্থের যোগান না থাকায় এয়ার ইন্ডিয়ার মতন সংস্থাকে বেসরকারিকরণে জোর দিয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে বিজেপি সরকার। যা মোটেই সমর্থনযোগ্য নয়। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের এহেন পদক্ষেপের ফলে বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী যেভাবে বাক্যবাণ বর্ষণ করেছেন কেন্দ্রীয় বিজেপি শিবিরের ওপর, তাতে রাজনৈতিক মহলে তীব্র গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে, অর্থনৈতিক মহল সূত্রে প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানা গেছে, বাস্তবে এয়ার ইন্ডিয়ার স্বত্ব কিনতে কোন সংস্থাই এখনো পর্যন্ত আগ্রহ প্রকাশ করেনি। আর্থিক মন্দার কারণে এই মুহূর্তে ভারতবর্ষ থেকে এয়ার ইন্ডিয়া কেনার ব্যাপারে কেউ এগিয়ে আসবেন কিনা সে বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞগণ। তার ওপরে বিজেপির অন্দরে এহেন বিতর্কের সূত্রপাত হওয়ায় আপাতত এয়ার ইন্ডিয়ার বেসরকারীকরণ প্রশ্নচিহ্নের মুখে আছে বলে মত অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। আপাতত সমগ্র পরিস্থিতির ওপর নজর রাখবেন তাঁরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!