এখন পড়ছেন
হোম > রাজনীতি > কংগ্রেস > আগামীদিনে কারা থাকবে, ব্রিগেড সমাবেশ থেকে জানিয়ে দিলে অধীর!

আগামীদিনে কারা থাকবে, ব্রিগেড সমাবেশ থেকে জানিয়ে দিলে অধীর!



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট –নির্বাচনের আগে মাস্টার স্ট্রোক দিতে বাম, কংগ্রেস এবং আব্বাস সিদ্দিকীর দলের পক্ষ থেকে চলছে ব্রিগেড সমাবেশ। কলকাতার এই ব্রিগেড সমাবেশের মধ্য দিয়ে তৃণমূল এবং বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ জানাতে চলেছে বাম, কংগ্রেস। গত লোকসভা নির্বাচনের পর রাজ্যে আরও অপ্রাসঙ্গিক হয়ে গিয়েছে এই দুই শিবির। কিন্তু এবার বিধানসভা নির্বাচনের আগে নিজেদের প্রাসঙ্গিক করে তুলতে রীতিমত তৎপর কাস্তে হাতুড়ি এবং হাত শিবির।

আর তাই এই ব্রিগেড সমাবেশের মধ্যে দিয়ে বিকল্প পথের সন্ধান দিতে মানুষের কাছে পৌঁছে যেতে চাইছে তারা। এদিন ব্রিগেড সমাবেশের মঞ্চে উপস্থিত হয়ে তৃণমূল এবং বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী। যেখানে আগামীদিনে তৃণমূল এবং বিজেপি কেউ থাকবে না বলে দাবি করতে দেখা যায় তাকে।

সূত্রের খবর, এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্য প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, “আজকের সভা প্রমাণ করছে আগামী নির্বাচনে তৃণমূল, বিজেপি নয়। সংযুক্ত মোর্চা আরও উপরে উঠেছে। আগামী দিনে তৃণমূল, বিজেপি থাকবে না। শুধুমাত্র সংযুক্ত মোর্চা থাকবে। এই ব্রিগেড একটা নমুনা মাত্র। এবার আমরা সরকার বদলাব। নতুন পরিবর্তনের রামধনু ব্রিগেডের মাঠে।”

অর্থাৎ রাজ্যে তৃণমূল এবং বিজেপি, এই দুই দলকে কুপোকাত করতে এখন যে মাঠে নেমে পড়েছে বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেস, তা ব্রিগেডের মধ্যে দিয়েই পরিষ্কার হয়ে গেল। এমনিতেই বরাবর দুই দলের প্রবল বিরোধী অধীর রঞ্জন চৌধুরী। সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে মাঝেমধ্যেই বিজেপিকে চাপে ফেলতে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের কথা তৃণমূলের আলোচনা হলেও, তার প্রবল বিরোধিতা করতে দেখা গেছে অধীর চৌধুরীর মতো কট্টর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরোধী নেতাকে।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

আর এবার ব্রিগেডের মঞ্চে উপস্থিত হয়ে তৃণমূল এবং বিজেপি দুই দলকেই কার্যত নিশান করলেন সেই অধীর চৌধুরী।বিশ্লেষকরা বলছেন, প্রতিনিয়ত দলবদলের সাক্ষী থাকছে বাংলা। তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা থেকে শুরু করে জনপ্রতিনিধিরা যোগ দিতে শুরু করেছেন ভারতীয় জনতা পার্টিতে। সেদিক থেকে তৃণমূল এবং বিজেপিকে একই মুদ্রার এপিঠ আর ওপিঠ বলে দাবি করতে শুরু করেছেন একাংশ।

তাই এই পরিস্থিতিতে মানুষের মন জয় করতে বিকল্প পথের সন্ধান দিতে বাম, কংগ্রেস এবং আব্বাস সিদ্দিকীর দলের পক্ষ থেকে ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে। আর সেই সমাবেশে উপস্থিত হয়ে বিকল্প পথের আহ্বান জানিয়ে সংযুক্ত মোর্চা আগামী দিনে রাজ্যে থাকবে বলে জানিয়ে দিলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী। যা রাজনৈতিকভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!