এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > আগামী সপ্তাহেই উত্তরবঙ্গে বড়সড় পরিবর্তন? জানালেন খোদ লোকসভায় তৃণমূলের প্রার্থী! জেনে নিন

আগামী সপ্তাহেই উত্তরবঙ্গে বড়সড় পরিবর্তন? জানালেন খোদ লোকসভায় তৃণমূলের প্রার্থী! জেনে নিন



প্রিয় বন্ধু মিডিয়া রিপোর্ট – গত ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে দ্বিতীয়বার ক্ষমতা লাভের পর তৃণমূল সরকারের পক্ষ থেকে কোচবিহার জেলার মেখলিগঞ্জের মত প্রান্তিক মহাকুমার উন্নয়নের উদ্দেশ্যে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদ গঠন করা হয়েছিল। সম্প্রতি মেখলিগঞ্জের এসডিও অফিসের নির্বাচনী সেলের একটি ঘরে কাজকর্ম চলছে এই পর্ষদের। তবে, পুজোর ছুটির পর আগামী সপ্তাহে অফিস খুলে গেলেই চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের স্থায়ী অফিসের জন্য জমি হস্তান্তর করা হবে জানা গেছে। মেখলিগঞ্জ বিডিও অফিসের উল্টোদিকে, এশিয়ান হাইওয়ের পাশে দেড় বিঘা জমির উপরে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের অফিস তৈরি হতে চলেছে। জমি হস্তান্তরের পর দ্রুত অফিস ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হবে বলে জানানো হলো।

মূলত, চ্যাংরাবান্ধা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য কেন্দ্রের উন্নয়নের লক্ষ্য নিয়ে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদ গঠন করা হয়েছিল। যদিও পরবর্তীকালে সম্পূর্ণ মহাকুমাকেই এই উন্নয়ন পর্ষদের আওতাভুক্ত করা হয়। এই উন্নয়ন পর্ষদের মাধ্যমে মেখলিগঞ্জ মহাকুমার ১৫ টি গ্রাম পঞ্চায়েত, মেখলিগঞ্জ শহরের রাস্তাঘাট, কালভার্ট নির্মাণ ও বেশ কিছু উন্নয়নমূলক কাজ কর্ম পরিচালিত হচ্ছে। চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান ও সেইসঙ্গে গত ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনে কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী পরেশ চন্দ্র অধিকারী জানালেন, ” আমি পর্ষদের দায়িত্ব নেওয়ার পর স্থায়ী অফিস তৈরির দাবি জানাই মুখ্যমন্ত্রীর কাছে। তিনি তাতে সাড়া দেন। অফিস তৈরির জন্য জমি দেখে সম্প্রতি রাজ্য সরকারের কাছে নথিপত্র পাঠাই। জমি হস্তান্তর করার কাজ প্রায় সম্পন্ন। পুজোর ছুটি মিটলেই আমাদের হাতে জমির নথি তুলে দেওয়ার কথা। জমি পেলেই স্থায়ী অফিস তৈরির কাজ শুরু করব।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কয়েক বছর আগে চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদ গঠনের পর বিধায়ক অর্ঘ্য রায়প্রধানকে এই পর্ষদের চেয়ারম্যান করা হয়েছিল। পরবর্তীকালে এর চেয়ারম্যান করা হলো ফরওয়ার্ড ব্লকছেড়ে তৃণমূলে আসা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পরেশ চন্দ্র অধিকারীকে। প্রথমদিকে চ্যাংরাবান্ধা বিডিও অফিসের একটি ঘর নিয়ে এই উন্নয়ন পর্ষদের অফিস করা হয়েছিল। কিন্তু সেখানে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সংযোগের সমস্যা থাকায়, পরবর্তীতে মেখলিগঞ্জ এসডিও অফিসে তা স্থানান্তর করা হয়। সেখানে একটি ঘরে অস্থায়ীভাবে কাজকর্ম চলছে এই পর্ষদের।

প্রসঙ্গত, কিছু দিন পূর্বেই এই উন্নয়ন পর্ষদের স্থায়ী অফিস নির্মাণের জন্য রাজ্য সরকারের কাছে জমি চেয়েছিল সংশ্লিষ্ট পর্ষদ। রাজ্য সরকার তাদের প্রস্তাবে সম্মতি জানায় ও তাদের জমি খোঁজার নির্দেশ দেয়। এরপর চ্যাংরাবান্ধা বিডিও অফিসের উল্টোদিকে, এশিয়ান হাইওয়ের পাশে এর জন্য জমি চিহ্নিত করা হলো। এই জমিটি ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর এর অধীনস্থ। চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, এই জমি সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য রাজ্য সরকারের কাছে দেয়া হয়েছে। আগামী সপ্তাহে জমি হস্তান্তরের কাজ শুরু হবে। জমি হস্তান্তর ও অফিস নির্মাণ দ্রুত শুরু হবে বলে আশাবাদী চ্যাংরাবান্ধা উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পরেশচন্দ্র অধিকারী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!