এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পুরনির্বাচনের প্রস্তুতি সারা পদ্ম শিবিরের, জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী রাজ্য বিজেপি

পুরনির্বাচনের প্রস্তুতি সারা পদ্ম শিবিরের, জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী রাজ্য বিজেপি



রাজ্যের পুরভোট আপাতত পাখির চোখ বিজেপির কাছে। সেই ভাবনায় ইতিমধ্যে প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গেছে দলের অন্দরে। লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক জমি অনেকটাই শক্ত করেছিল বিজেপি। এবার লড়াই সেই মাটি আঁকড়ে থাকার। এই মুহূর্তে রাজ্যজুড়ে পুরভোটের হাওয়া। আর সেই হাওয়াকেই পালে টানতে বিজেপি ইতিমধ্যে নানান পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। খুব স্বাভাবিকভাবেই আগামী বছর বিধানসভা ভোটের আগে রাজ্যের পুর নির্বাচন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ রাজ্যের শাসক ও বিরোধী দলগুলোর কাছে। সেই লক্ষ্যে এগোতে এবার পশ্চিমবঙ্গের রাজনৈতিক দলগুলি বিভিন্ন রাজনৈতিক কৌশল অবলম্বন করছে।

ইতিমধ্যে বিজেপির পক্ষ থেকেও জানা গেছে, তাঁরাও এপ্রিলেই পুরভোটের পক্ষে। ইতিমধ্যে দলীয় সূত্রে জানা গেছে, কলকাতা সহ রাজ্যের প্রত্যেকটি পুরসভার জন্য প্রার্থী তালিকা প্রস্তুত হয়ে গেছে পদ্ম শিবিরের। তবে এখনও পর্যন্ত সেই তালিকাতে সীলমোহর পড়েনি কারণ ঝাড়াইবাছাই পর্ব এখনো চলছে। তবে উল্লেখ্য, এবারের পুর নির্বাচনে বিজেপির পক্ষ থেকে কাউকেই মেয়র পদে ভেবে নিয়ে প্রচার চালানো হচ্ছেনা। তবে আগামী বছরের নির্বাচনের আগে পুরভোট বিজেপির কাছে মর্যাদা রক্ষার লড়াই। রাজ্যের জনমত তাদের সাথে কতটা আছে তা বোঝা যাবে এই নির্বাচনের মাধ্যমে।

সূত্রের খবর, বিজেপির প্রধান লক্ষ্য রাজ্য বিধানসভার মসনদ দখল করা। সেই লক্ষ্যে পৌঁছতে গেলে পুর নির্বাচনের বৈতরণী তাঁদের পার হতে হবে। আর সেই লক্ষ্যে পুর নির্বাচন জেতা বিজেপির কাছে একটা চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। কলকাতা সহ রাজ্যের 102 টি পুরসভায় নির্বাচন হতে চলেছে সামনের দিনে। তবে বিজেপির পক্ষ থেকে প্রতিটি আসনের জন্য প্রার্থী বাছাই ইতিমধ্যে হয়ে গেছে। তবে প্রথমবার বিজেপি এতগুলি আসনের জন্য লড়াইয়ে নামছে, তাই বিজেপি খুব সাবধানী পদক্ষেপ ফেলছে। অন্যদিকে, রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, এই লড়াই জিততে তাঁরা মানসিকভাবে প্রস্তুত।

ফেসবুকে আমাদের নতুন ঠিকানা, লেটেস্ট আপডেট পেতে আজই লাইক ও ফলো করুন – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের টেলিগ্রাম গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের সিগন্যাল গ্রূপে জয়েন করতে – ক্লিক করুন এখানে



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু জানিয়েছেন, তাঁদের কাছে ইতিমধ্যে রাজ্যের পুর নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা প্রস্তুত। তবে এবার চলছে উপযুক্ত প্রার্থীর হাতে নির্বাচনী লড়াইতে নামার জন্য দলের ভার তুলে দেওয়ার প্রস্তুতি। তবে, পুর নির্বাচন জিততে ইতিমধ্যে রাজনৈতিক কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে বিজেপি। বরাবরই শাসকদলের অন্তর্কলহের কথা সর্বজনবিদিত। এবার সেই দ্বন্দকেই কাজে লাগাতে চলেছে বিজেপি শিবির। তবে কলকাতার ক্ষেত্রে 144 টি ওয়ার্ডে কারা লড়াইতে নামবেন, সেই প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সেরে ফেলেছে বিজেপি শিবির।

এদিকে বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসু জানিয়েছেন, পুর নির্বাচনে লড়াইয়ের জন্য ইতিমধ্যে পদ্ম শিবিরের রণকৌশল তৈরি। বিজেপির দলীয় সূত্রে জানা গেছে, তৃণমূলকে কোণঠাসা করার জন্য কলকাতার প্রতিটি ওয়ার্ডের জন্য আলাদা আলাদা কৌশল প্রয়োগের প্রস্তুতি নিয়েছে পদ্ম শিবির। গত পাঁচ বছরে তৃণমূলের কাজের পর্যালোচনা করা হবে প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রচারে গিয়ে। বিজেপি শিবিরের দাবি, এভাবে প্রচার চালালেই জনগণের চোখ খুলবে এবং তাঁরা খুব স্বাভাবিকভাবেই বুঝতে পারবে, রাজ্যের পুর নির্বাচনে কাকে ভোট দেওয়া উচিত।

অন্যদিকে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, বিধানসভা ভোটের আগেই পুর নির্বাচন হওয়ায় একে সেমিফাইনাল হিসেবে ধরে নিয়ে সর্বশক্তি দিয়ে পুরভোটে লড়াইতে নামছে বিজেপি। কারণ, বিধানসভা ভোটের আগে যদি কলকাতাকে পুরসভা ভোটে ধাক্কা দেওয়া যায়, তাহলে অবশ্যম্ভাবী তার প্রভাব পড়বে রাজ্যব্যাপী। অন্যদিকে, রাজনৈতিক মহলের মতে এবারের পুরসভার নির্বাচন রাজ্যের রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। তার কারণ, সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে প্রত্যেকটি দল নিজেদের সংগঠনকে মেপে নেওয়ার কাজে নেমেছে। আপাতত আগামী দিনের পরিস্থিতি কি হতে চলেছে সেদিকে নজর রাখবে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকগণ।

আপনার মতামত জানান -

ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!