এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > প্রাক্তন বিজেপি নেতার ডাকে সাড়া দিয়ে বিজেপি-বিরোধি মঞ্চে মমতার দূত

প্রাক্তন বিজেপি নেতার ডাকে সাড়া দিয়ে বিজেপি-বিরোধি মঞ্চে মমতার দূত



কেন্দ্রীয় রাজনীতিতে দলের একাংশের বিরোধিতায় কিছুটা ব্যাকফুটে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এরমধ্যেই নিজের দলের ওই বিক্ষুদ্ধ অংশের সাথে যোগ দিয়েছে অন্যান্য শাসক ও বিরোধীদলগুলি। সেই তালিকায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম যুক্ত হল। মোদি বিরোধিতায় চিরকালই সরব ছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। এবার খাস রাজধানীর বুকে মোদি-বিরোধী এক মঞ্চে যোগ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিনিধি তৃনমূল সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী।

উল্লেখ্য, বেশ কয়েকদিন থেকেই রাজধানীতে মোদি-বিরোধী হাওয়া বইছে । বিজেপিরই এক অংশ প্রধানমন্ত্রীর কৃষিনীতির বিরোধিতায় সরব হয়েছেন। এই বিরোধিতায় যোগ দিয়েছেন এক সময়ের বিজেপির মন্ত্রিসভার অর্থ ও বিদেশ মন্ত্রী যসবন্ত সিনহা। পাশাপাশি যোগ দিয়েছেন বিজেপি সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা সহ সাংসদদের একাংশ। তাদের দাবি, নরেন্দ্র মোদি নিজের স্বার্থপুরণের জন্য কৃষকদের ভিখারির পর্যায়ে নামিয়ে এনেছেন। এই নীতির বিরোধিতায় এদিন ‘রাষ্ট্র মঞ্চ’নামে সংগঠন তৈরির অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ একাদিক রাজনৈতিক দলকে। এই আমন্ত্রণে সায় দিয়ে নিজে উপস্থিত না থাকতে পারলেও এই কর্মসূচিকে সমর্থন জোগাতে পৌঁছে যান মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিনিধি সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী। এই ঘটনার পর মোদি-বিরোধিতায় মুখ্যমন্ত্রীর স্থান আরও স্পষ্ট করলেন তিনি।

এদিন ওই অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে বারবার মোদির বিরুদ্ধে একাধিক প্রশ্নবান উঠে এসেছে। তিনি বলেন, আজকের গঠিত এই ‘রাষ্ট্র মঞ্চ’ কোনো রাজনৈতিক দলের নয়, সাধারণ মানুষের। সাধারণ মানুষের প্রতি হওয়া অরাজনৈতিক পদক্ষেপের বিরোধিতা করার জন্যই এই সংগঠন গঠিত করা হল। মোদির আর্থিক ও বিদেশ নীতির বিরুদ্ধে সকলকে গর্জে উঠতে হবে। ” বিজেপির অন্দরে একাংশের এই বিরোধিতায় মোদির ভাবমূর্তিযে ছাপ পড়ছে। পাশাপাশি অস্বস্তি তৈরি হয়েছে দলের অন্দরে। যদিও এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্মতিতে অন্য মাত্রা যোগ করে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!