এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ডিএ মামলার পর প্রাথমিক শিক্ষকদের থেকে কি রাজ্য সরকারের কাছে আরো বড় ধাক্কা আসতে চলেছে?

ডিএ মামলার পর প্রাথমিক শিক্ষকদের থেকে কি রাজ্য সরকারের কাছে আরো বড় ধাক্কা আসতে চলেছে?



বকেয়া ডিএ ও কেন্দ্রীয় হারে বেতন না পেয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের একাংশ রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছিলেন। সেই মামলার শুনানি আপাতত শেষ – সব পক্ষই অপেক্ষা করছেন আদালতের রায়ের জন্য। আর তার মাঝেই তীব্র জল্পনা ছড়িয়েছে – আদালত যদি রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের দাবি মেনে নিয়ে রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দেয় বকেয়া মেটানোর – তাহলে কথা থেকে সংস্থান হবে সেই বিপুল পরিমান অর্থের?

আর এই উদ্বেগের মাঝেই রাজ্য সরকারের চিন্তা আরো বাড়াতে আজ কেন্দ্রীয় হারে বেতনের দাবিতে মহা-সমাবেশের ডাক দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন ইউইউপিটিএ। সংগঠনের দাবি, প্রাথমিক শিক্ষকদের ন্যূনতম শিক্ষাগত যোগ্যতা কেন্দ্রের বেঁধে দেওয়া নিয়ম অনুযায়ী হচ্ছে, এমনকি প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য ট্রেনিংও আবশ্যিক করে দেওয়া হয়েছে – অথচ, বেতন দেওয়ার বেলায় দেওয়া হচ্ছে পুরোনো স্কেলে।

আরো পড়ুন : বেতন বৈষম্য মেটানোর দাবিতে রাজ্যসরকারের ঘুম ওড়াতে বড়সড় আন্দোলনে নামছেন প্রাথমিক শিক্ষকরা

আর তাই, ইউইউপিটিএ-র দাবি এবার কেন্দ্রীয় হারেই বেতন দিতে হবে। সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা, প্রাথমিক শিক্ষকদের এই দাবিতে আন্দোলনের ফলে তীব্র চাপে পড়ে গেল রাজ্য সরকার। কেননা প্রাথমিক শিক্ষকদের এই দাবির মধ্যে যথেষ্ট যৌক্তিকতা আছে – তাই রাজ্য সরকার এই দাবি না মানলে, ডিএ মামলার মতোই আদালতের রাস্তায় হাঁটতেই পারেন মামলাকারীরা। আর সেক্ষেত্রে আদালতের নির্দেশ তাঁদের পক্ষে গেলে – এই দাবি মেনে নেওয়া ছাড়া আর অন্য কোন পথ খোলা থাকবে না রাজ্য সরকারের কাছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এদিকে, রাজ্যে প্রাথমিক শিক্ষকের সংখ্যা অন্তত ৫০ হাজার। আর রাজ্য সরকার যদি এই কেন্দ্রীয় হারে বেতনের দাবি মেনে নেয় – তাহলে যে পরিমান অর্থের জোগাড় করতে হবে তা কিভাবে সামাল দেওয়া হবে ভেবে পাচ্ছেন না অনেকেই। ফলে ডিএ মামলার পাশাপাশি প্রাথমিক শিক্ষকদের এই আন্দোলন কার্যত ঘুম কাড়তে চলেছে নবান্ন-কর্তাদের বলেই সংশ্লিষ্ট মহলের ধারণা।

প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন ইউইউপিটিএ-র তরফে জানানো হয়েছে, আজ সকাল ১১ টায় সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে জমায়েত হয়ে মিছিল শুরু হবে। আর তারপর দুপুর ১২ টা থেকে বিকেল ৩ টে পর্যন্ত রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে সমাবেশ চলবে। সারা রাজ্য থেকেই প্রাথমিক শিক্ষকদের একটি বিশাল অংশের সাথে সাথে আজকের সমাবেশে উপস্থিত থাকতে চলেছেন শিক্ষাবিদ এবং বুদ্ধিজীবীরা। ফলে সবমিলিয়ে আজকের সমাবেশের পর রাজ্য সরকারের উপর তীব্র চাপ বাড়তে চলেছে বলেই ধারণা সংশ্লিষ্ট মহলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!