এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > বিজেপির হেভিওয়েট গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করলেন প্রদেশ সভাপতি অধীর চৌধুরী

বিজেপির হেভিওয়েট গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করলেন প্রদেশ সভাপতি অধীর চৌধুরী



রাজ্য-রাজনীতিতে এই মুহূর্তে দলবদল নিয়ে চূড়ান্ত জল্পনা চলছে। একদিকে যখন একের পর এক হেভিওয়েট কংগ্রেসের বিধায়ক-সাংসদ শাসকদলে যোগ দিচ্ছেন বা যোগ দেবেন বলে জল্পনা চলছে, অন্যদিকে তখন গেরুয়া শিবিরের রাজ্য নেতৃত্ত্বের দাবি শাসকদলের এমন কিছু নেতা শীঘ্রই বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন যাতে নাকি শাসকদলের শীর্ষ নেতৃত্ত্বের ‘হার্ট এটাক’ হয়ে যেতে পারে। এর মাঝেই প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর নাম নিয়েও চূড়ান্ত জল্পনা ছড়িয়েছে। একদিকে তাঁকে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রকাশ্য আহ্বান জানিয়েছেন গেরুয়া শিবিরের নেতারা, অন্যদিকে তাঁর বিজেপিতে যাওয়া নিয়ে ভবিষ্যৎবাণী করে জল্পনা আরো বাড়িয়েছেন শাসকদলের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারী। অধীরবাবু কিন্তু স্পষ্টতই জানিয়ে দিয়েছেন তিনি কংগ্রেস ছেড়ে কোথাও যাচ্ছেন না।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এই পরিস্থিতিতে অধীরবাবু বর্তমানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভার অঘোষিত ২ নম্বর মন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের সঙ্গে বৈঠ করেন বলে সূত্রের খবর। স্বাভাবিকভাবেই এই দুই শীর্ষনেতার বৈঠক ঘিরে প্রাথমিকভাবে চূড়ান্ত জল্পনা তৈরী হয়। তবে সূত্রের খবর, দলবদল সংক্রান্ত কোনো আলোচনা নয় অধীরবাবু মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন রেলওয়ে সংক্রান্ত দাবি নিয়ে। এর মধ্যে অন্যতম হল, বহরমপুর থেকে কলকাতাগামী ধনধান্যে এক্সপ্রেসের যাত্রা প্রত্যেকদিন করা, লালগোলা-শিয়ালদহ লোকাল ট্রেনে পানীয় জল ও টয়লেটের ব্যবস্থা করা, কাশিমবাজারের মতো ঐতিহ্যবাহী স্টেশনের উন্নয়ন করা, বহরমপুর স্টেশনে চলমান সিঁড়ির ব্যবস্থা করা, বহরমপুর শহরে রেলের ওভারব্রিজের কাজ দ্রুত শুরু করা এবং আজিমগঞ্জ-জিয়াগঞ্জ সংযোগের কাজ দ্রুত শুরু করা। অধীরবাবু এই প্রসঙ্গে রেলমন্ত্রীকে জানান নিজের এমপি ল্যাডের অর্থ এই উন্নয়নের কাজে দিতে তিনি ইচ্ছুক।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!